ঘুমন্ত অবস্থায় জানালা দিয়ে তৃণমূলের বুথ সভাপতিকে লক্ষ্য করে গুলি!

নিজস্ব প্রতিনিধি, চাঁচলঃ ঘুমন্ত অবস্থায় জানালা দিয়ে তৃণমূলের বুথ সভাপতিকে লক্ষ্য করে গুলি আততায়ীদের। অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষ্যা বুথ সভাপতির। অভিযোগের তীর এলাকারই এক বিজেপি কর্মীর দিকে। ঘটনস্থলে গিয়ে পরিদর্শন তৃণমূল বিধায়ক অব্দুর রহিম বক্সির।

এদিন গুলি চালানোর ঘটনায় আতঙ্কিত পরিবারের সদস্যরা। এই ঘটনায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে মালদহের চাঁচল-২ নং ব্লকের মালতীপুর পঞ্চায়েতের সাঞ্চিয়া গ্রামে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার বিজেপির। শুক্রবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে সাঞ্জিয়া গ্রামে। ওই ঘটনা নিয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেনওই তৃণমূল নেতা সাগর সরকার। গোটা ঘটনার তদন্তে চাঁচল থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আহত ওই তৃণমূল বুথ সভাপতির নাম সাগর সরকার। অভিযুক্ত বিজেপি নেতার নাম দুলাল প্রামানিক। স্থানীয় এবং পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার গভীর রাতে নিজের শোয়ার ঘরে স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন সাগর সরকার। তারমধ্যে ই ঘরে মধ্যের বিকট শব্দে ঘুম ভেঙে যায় তাদের। পরিবারের সদস্যাদের হইচইয়ে ভিড় জমান প্রতিবেশীরাও।

ঘটনায় পরিবারের সদস্যা ও সাগর সরকার জানান, বাড়িতে ঘুমিয়েছিলাম। হঠাৎ বিকট শব্দ পায়। ভাবলাম টিভি বা ফোন ব্লাস্ট হয়েছে। তবে তা নয়। তারপর দেখি কার্তুজ ঘরের মেজেতে পড়ে রয়েছে। তবে ধুয়ো লাগায় শরীরে দাগ বেড়িয়ে আসাই স্থানীয় মালতিপুর স্বাস্থ্যা কেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসার পর বাড়ি চলে আসি।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচনের প্রাক্কালে এলাকারই এক বিজেপি নেতা দুলাল প্রামাণিককের সাথে বচসা হয় প্রাণনাসের হুমকিও দেন। সেই ঘটনার জন্য তিনি এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করছেন। এদিকে বুথ সভাপতিতর উপর গুলি চালানোর ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে যান মালতিপুরের বিধায়ক আব্দুর রহিম বক্সি। তিনি অভিযুক্তের কঠোর স্বস্তির দাবি তুলেছেন।

যদিও গোটা ঘটনা পুরোপুরি অস্বীকার করেছে বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সহ সভাপতি অভিষেক সিংহানিয়া। তিনি বলেন, আমরা গুলি-বোমায় বিশ্বাস করিনা নিছকই ওটা একটা পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিবাদ।