রাজ্য

বাংলাকে জঙ্গি মুক্ত করতে পুরো রাজ্যে বিএসএফের নজরদারিতে আনা উচিত : শুভেন্দু

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : বিএসএফের পরিসর বাড়ানো নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই একটি নির্দেশিকা জারি করেছে এবং তার বিরুদ্ধেই বিধানসভায় প্রস্তাব আনা হবে। ১৭ নভেম্বর এই মর্মে আনা হবে প্রস্তাব। বিধানসভায় এই প্রসঙ্গে আলোচনা হবে ১ ঘণ্টার।

এই ইস্যুতেই এবার বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন বিজেপি বিধায়ক তথা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর বক্তব্য, গোটা বাংলার নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রীয় বাহিনীর হাতে থাকা উচিত! একই সঙ্গে, জন্মনিয়ন্ত্রণ আইন আনতে হবে বলেও দাবি করেন তিনি।

কেন্দ্রীয় সরকার সম্প্রতি নির্দেশিকা জারি করে জানিয়েছে, আগে বিএসএফের এলাকা যেখানে ছিল সীমান্ত থেকে ১৫ কিলোমিটার, সেটা এখন ৫০ কিলোমিটার হচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি তৃণমূল কংগ্রেসের তরফেও ব্যাপক প্রতিবাদ জানানো হয়েছিল। তবে এই বিষয়ে শুভেন্দুর বক্তব্য, বিএসএফের ক্ষমতা বাড়বে না কমবে সেটা ঠিক করার দায়িত্ব একমাত্র কেন্দ্রীয় সরকারের রয়েছে, এর বাইরে কেউ ঠিক করবে না। এই প্রেক্ষিতে আবার সিতাই প্রসঙ্গ টেনে আনেন তিনি। বলেন, সেখানে গরু পাচার করতে গিয়েছে কেউ, বিএসএফ দুম করে মেরেছে। তাঁর কথায়, শুধু ৫০ মিটার নয়, গোটা বাংলা কেন্দ্রীয় বাহিনীর নজরে আনতে হবে। শুভেন্দুর দাবি, বাংলাকে জঙ্গি মুক্ত করতেই এই পদক্ষেপ জরুরি।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি অসম, পঞ্জাব ও পশ্চিমবঙ্গে বিএসএফ-এর জন্য নতুন নিয়ম চালু হয়েছে। সেই নিয়ম অনুযায়ী, এই তিন রাজ্যে আন্তর্জাতিক সীমান্ত থেকে ভারতীয় ভূখণ্ডের ৫০ কিলোমিটার এলাকায় তল্লাশি, বাজেয়াপ্ত এবং গ্রেফতার করতে পারবে বিএসএফ। এই নয়া নিয়মে প্রথম থেকেই আপত্তি জানিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিংহ চান্নি। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি রাজ্যের বিষয়ে নাক গলাচ্ছে৷ পাল্টা হিসেবে গেরুয়া শিবিরের দাবি, রাজ্য ভয় পাচ্ছে নিজেদের দু’নম্বরি ধরা পড়ে যাবে৷

Ad

[ লেটেস্ট খবর এবং আপডেট জানার জন্য ফলো করুন ইউবিজি নিউজ ফেসবুক পেজ । ব্রেকিং নিউজ এবং ডেইলি খবরের আপডেটে পেতে যুক্ত হোন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে  ]