বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের ভোটার হল বিজেপির দুই নেতা

ইউবিজি নিউজ ব্যুরো : পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের আগে এ রাজ্যের ভোটার হল বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায় এবং রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত। দু’জনেই এতদিন ছিলেন দিল্লির ভোটার।মুকুল রায় বাংলার ভোটারই নন। তিনি দিল্লির ভোটার প্রায়শই তাঁকে এই খোঁটা শুনতে হত। ক-দিন আগেই তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ কটাক্ষ করেছিলেন মুকুল রায়কে।

মুকুল রায়ের নাম উঠেছে বীজপুর বিধানসভার ভোটার তালিকায়। যেখানে তাঁর বাড়ি। তাঁর ছেলে শুভ্রাংশু রায় এই বীজপুর কেন্দ্রেরই বিধায়ক। অর্থাৎ এবার তাঁর ছেলে প্রার্থী হলে তিনি ভোটদান করতে পারবেন তাঁকে। গত বছর দিল্লির নির্বাচনেও তিনি ভোট দিয়েছিলেন।

এবার ফের তিনি ভোট দেবেন বাংলায়। আর স্বপন দাশগুপ্তর নাম রয়েছে বালিগঞ্জ বিধানসভার ভোটার তালিকায়। ওই এলাকাতেই স্বপন দাশগুপ্তর বাড়ি৷ বালিগঞ্জের ভোটার হওয়ায় তাঁকে নিয়ে জল্পনা বাড়তে বাড়ছে। তিনি কি এ রাজ্যে বিধানসভা ভোটে লড়বেন? স্বপনবাবু বলেন, ‘‘কেন? এখানে আমার বাড়ি আছে। আমি ভোটার হিসাবে তালিকায় নাম তুলেছি।’’

মুকুলবাবু অবশ্য দিল্লির ভোটার হয়েছিলেন ২০১৭ সালে। তার আগে তৃণমূলে থাকাকালীন তিনি ছিলেন তৃণমূল ভবন যে এলাকায় পড়ে, সেই কসবার ভোটার। তিনি কি বিধানসভা ভোটে প্রার্থী হবেন? মুকুলবাবু বলেন, ‘‘না। ভোট দেব। বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য কাজ করব।’’

কদিন আগে আসানসোলের ভোটার তালিকায় নাম উঠেছিল স্থানীয় বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র। ২০১৪ সালে বাবুল সুপ্রিয় যখন আসানসোল লোকসভা কেন্দ্র থেকে জিতে সংসদে যান তখন তিনি উত্তর কলকাতার ভোটার ছিলেন। এত দিন পর্যন্ত আসানসোলের ভোটার তালিকায় তাঁর নাম ছিল না।

এবার তাঁর আসানসোলের ভোটার তালিকায় নাম উঠল। পশ্চিম বর্ধমানের জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজির প্রকাশ করা ভোটার তালিকায় স্ত্রী রচনা শর্মা ও বাবুলের নাম উঠেছে। আসানসোল পুরসভার ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের।