Ad
রাজ্য

রাজ্যে বেলাগাম করোনা পরিস্থিতি, স্কুলগুলোকে নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত সরকারের

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

UBG NEWS: রাজ্যে ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতি। রাজ্য সরকারের তরফে রবিবার থেকে রাজ্যে লকডাউন শুরুর ঘোষণা করা হয়েছিল শনিবার। তার তিন দিনের মাথাতে ফের নতুন ঘোষণা রাজ্য সরকারের। করণা মোকাবিলায় রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলগুলিকে সেফহোম বানানোর কথা জানানো হয়েছে। সেই অনুযায়ী স্কুলগুলিতে স্যানিটাইজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

স্বাস্থ্য দপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২ সপ্তাহ আগে রাজ্যে করনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৭ হাজার ৫০১। গত ২৪ ঘন্টায় সেই সংখ্যাটা বেড়ে হয়েছে ১৯ হাজার ৩ টি। গত দু সপ্তাহ আগে পশ্চিমবঙ্গে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন ৯৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সেই সংখ্যাটাই দাঁড়িয়েছে ১৪৭ জন।

Ad

ইতিমধ্যে স্টেডিয়াম ও বিভিন্ন হাসপাতালগুলোকে সেফ হোম বানানো হলেও প্রশ্ন উঠছিল স্কুলগুলোকে সেফ হোম বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েও। যেখানে হাসপাতালগুলোতে রোগীদের ভিড় উপচে পড়ছে সেখানে স্কুলগুলোকে সেফ হোম বানানো হলে মহামারীর পরিস্থিতি মোকাবিলায় সুবিধা হবে।  সেই ভিত্তিতেই স্কুলগুলোকে সেফ হোম বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের শিক্ষা দফতর।

জেলাশাসকদের কাছে সেই সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে ইতিমধ্যেই। চিঠিতে স্কুলগুলোকে দ্রুত স্যানিটাইজ করার দাবিও জানানো হয়েছে। সেফ হোম তৈরি সিদ্ধান্তের জন্য মূলত কয়েকটি বিষয়কে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। অনেকেই রোগীর চিকিৎসা করাচ্ছেন বাড়িতে থেকেই যখন হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন তখন পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে। যার ফলে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন রোগী।

সেই সঙ্গে যাদের বাড়ি ছোট সেখানে পরিবারের একজন সদস্য করোনায় আক্রান্ত হলে দ্রুত অন্য সদস্যরাও করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে সেফ হোমের সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাজ্য শিক্ষা দফতর।

শিক্ষা দপ্তরের এই উদ্যোগে খুশি শিক্ষক মহলও। সুতপা গাঙ্গুলি নামের এক শিক্ষিকা বলেন, “নিঃসন্দেহে খুবই ভালো সিদ্ধান্ত। অবশ্যই স্কুলগুলোতে তৈরি করা হলে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে সুবিধা হবে।” তবে শিক্ষক মহলে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে এক প্রশ্ন- সেফ হোম তো তৈরি হবে কিন্তু এর মাঝে স্কুল খোলার প্রয়োজন হলে তখন কি পদক্ষেপ নেওয়া হবে?

আরও পড়ুন