ফেসবুকে আলাপ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তরুণীর সঙ্গে একাধিকবার সহবাস ও ধর্ষণ, গ্রেফতার রেলকর্মী

বর্ধমান: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তরুণীর সঙ্গে একাধিকবার সহবাস৷ কিন্তু ভালোবাসার মানুষটি বিয়ে করতে বেঁকে বসে৷ শুধু তাই নয়, তরুণীর ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের কিছু ছবি দেখিয়ে ব্ল্যাকমেল করে৷

এসব ঘটনায় মাথায় বাজ ভেঙে পড়ে তরুণীর৷ পরে অবশ্য তিনি নিজেকে সামলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন৷ সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বর্ধমান থেকে অভিযুক্ত রেলের এক কর্মীকে গ্রেফতার করল নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ৷

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম প্রদীপ সিং৷ বাড়ি পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পাঁশকুড়ায়৷ ২০১৮ সালে সেপ্টেম্বর মাসে তরুণীর সঙ্গে প্রদীপের আলাপ হয় ফেসবুকে৷ তারপর সেখান থেকে প্রেম৷ ক্রমশ প্রেম গড়ায় ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে৷ এরপর তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাঁর সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় সে৷

এরপর তরুণী প্রদীপকে বিয়ের জন্য জোর করলে বেঁকে বসে সে৷ তরুণীকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে প্রদীপ৷ তরুণীর অভিযোগ, শুধু তাই নয়, তাঁদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকিও দেয় সে৷ বিনিময়ে নির্যাতিতার কাছ থেকে ১০ লক্ষ টাকা দাবি করে প্রদীপ৷ এরপরেই তাঁর নামে নরেন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে৷ বৃহস্পতিবার রাতে ওই রেলকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়৷