ফের একবার প্রকাশ্যে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ, ভাঙচুর দোকান-বাইক

মেদিনীপুর: ফের একবার প্রকাশ্যে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ। তৃণমূল করার অপরাধে তৃণমূল কর্মীর দোকান, বাইক ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, তৃণমূল কর্মীর বাবা-মাকেও মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় বিজেপি।

বৃহস্পতিবার ঘটনাটি পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড় থানার পোক্তাপুল এলাকায়।জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে তৃণমূলের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন ঝন্টু গিরি ও তার ছেলে রঞ্জিত গিরি সহ সমস্ত পরিবার। এর জন্য এলাকার বিজেপির লোকেরা তাদের হুমকি দিত। পোক্তাপুল থেকে দশগ্রাম গামী ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের কাছেই ওই তৃণমূল কর্মীর একটি খাবারের দোকান রয়েছে।

তৃণমূল কর্মী ঝন্টু গিরির অভিযোগ, “বৃহস্পতিবার প্রায় রাত্রি ৯ টা নাগাদ বিজেপির কিছু দুষ্কৃতি তাদের দোকানে এসে হুমকি দিতে থাকে। সেই সঙ্গে দোকানের চেয়ার টেবিল সহ একটি বাইক ভাঙচুর করে। বাধা দিতে গেলে আমাকে ও আমার স্ত্রীকে মারধর করে।” তিনি বলেন, “এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে তৃণমূল করি। আমাদের দোকানে অনেক নেতৃত্বরা আসেন। তাই এই ধরনের আক্রমণ। আমরা নারায়ণগড় থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছি।”

যদিও এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কোন হাত নেই বলে দাবি করেছে এলাকার বিজেপির নেতৃত্ব রামচন্দ্র দাস। তার পাল্টা অভিযোগ, “বিজেপি নীতি আদর্শের দল। এই ধরনের কাজ বিজেপি করতে পারে না। এটা ওদের নিজেদের মধ্যে সমস্যা।” এই অভিযোগকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন তিনি।