‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুরোপুরি বাংলাদেশি হয়ে গিয়েছে, তাঁর ভারতীয়তা বা ভারতীয় সংস্কৃতির ওপর কোনও বিশ্বাস নেই’, মন্তব্য বিজেপি নেতার

ইউবিজি নিউজ ব্যুরো : এখনও পশ্চিমবঙ্গে ভোটের কিছুদিন বাকি আছে। কিন্তু তার আগেই কার্যত বাক সংযম হারাচ্ছেন নেতারা। শিরোনামে আসার জন্য রাজনৈতিক প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে কার্যত কুৎসা করেছেন অনেকে। সেই তালিকায় শামিল হলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি মন্ত্রী আনন্দ স্বরূপ শুক্লা। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কার্যত বাংলাদেশি বলে অভিহিত করলেন তিনি।

উত্তরপ্রদেশের গ্রামোন্নয়ন ও বিধানসভার পরিষদীয় মন্ত্রী তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন যা রীতিমত ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আনন্দ বলেন,’মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুরোপুরি বাংলাদেশি হয়ে গিয়েছে। তাঁর ভারতীয়তা বা ভারতীয় সংস্কৃতির ওপর কোনও বিশ্বাস নেই। বাংলাদেশের যেসব ইসলামিক সন্ত্রাসবাদী আছে, তাদের ইশারায় কাজ করছেন মমতা।’

এরপর বিজেপি নেতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা মুসলমানদের নাগরিকত্ব দেওয়া, বাংলাদেশি মুসলমানদের নাগরিকত্ব দেওয়া, হিন্দু দেব-দেবীদের অপমান করা, মন্দির ভাঙা, হিন্দু উৎসব পালনে বাধা দেওয়ার অভিযোগ করেন। এই সব গুরুতর অভিযোগের স্বপক্ষে কোনও প্রমাণ অবশ্য দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি এই নেতা।

তাঁর দাবি, ‘দেশের জন্য সবচেয়ে বড় বিপদ হয়ে উঠেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই জন্য মানুষ ওনার পাশ থেকে সরে যাচ্ছেন, এর কারণ অধিকাংশ লোক যারা তৃণমূলেও আছে, তারা এখনও ভারত মাতার জয় বলেন, তাই তারা বিজেপিতে আসছেন। এই কারণে এপ্রিলের ভোটে ২৯৪ আসনের মধ্যে ২০০টির বেশি আসন জিতবে বিজেপি। পশ্চিমবঙ্গেও বিরাট হিন্দু ভাবাবেগ নিয়ে দলের রাষ্ট্রবাদের যে নীতি আছে, সেটা লাগু হবে’। বিজেপি নেতার এই আক্রমণ নিয়ে এখনও তৃণমূলের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি।