বেসুরো রাজীব, সব্যসাচীরা! আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শুভেন্দু অধিকারীর, বাড়ছে জল্পনা

কলকাতা , ৯ জুনঃ দিল্লিতে শুভেন্দু অধিকারী। আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করবেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা। বিরোধী দলনেতা নির্বাচিত হওয়ার পর বুধবারই প্রথম প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করবেন শুভেন্দু। মঙ্গলবার দফায় দফায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগৎপ্রকাশ নাড্ডার সঙ্গে দেখা করেছেন শুভেন্দু অধিকারী।

আজ বিজেপির শীর্ষ নেতা তথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শুভেন্দু অধিকারীর। সৌজন্য বিনিময়ের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গে দল পরিচালনা নিয়েও শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে আলোচনা করবেন মোদী।আজ বেলা ১২টার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শুভেন্দু অধিকারীর। আগামী দিনে বাংলায় বিরোধী দলের নেতা হিসেবে শুবেন্দু অধিকারীর ভূমিকা ঠিক কী হবে সেই বিষয়ে শুভেন্দু অধিকারীকে পরামর্শ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এদিন বেলা ১২টা নাগাদ প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে গিয়ে মোদীর সঙ্গে দেখা করবেন শুভেন্দু। বিধানসভা ভোটের ফল বেরনোর পর থেকে রাজ্যে বিজেপির অন্দরে অসন্তোষ দানা বাঁধছে। ইতিমধ্যেই বেসুরো গাইতে শুরু করেছেন বেশ কয়েকজন নেতা। বিশেষ করে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখানো কয়েকজন দল পরিচালনা নিয়ে মুখ খুলেছেন।

‘বেসুরো’ গাইছেন খোদ মুকুল রায়। তালিকায় সব্যসাচী দত্ত থেকে শুরু করে রয়েছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রবীর ঘোষালরা। ক্রমেই তালিকাটা দীর্ঘ হচ্ছে। বিধানসভা ভোটের ফলই গেরুয়া শিবিরের সব হিসেব-নিকেশ উল্টে দিয়েছে। ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক পড়ে গিয়েছিল। একদিকে কলকাতায় দলের সদর কার্যালয়ে দলবদলের চিত্র টিভির পর্দায় দেখা যেত নিত্যদিন।

তৃণমূলের একের পর এক নেতা-কর্মী দলে-দলে নাম লিখিয়েছিলেন পদ্ম শিবিরে। এমনকী চলচ্চিত্র জগত থেকেও অনেকে এসে যুক্ত হয়েছিলেন বিজেপিতে। তবে ভোটের ফল বেরনোর পর ছবিটা বদলেছে। বিজেপির সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে তৃণমূল ছেড়ে আসা অনেক নেতারই। একই ছবি জেলাগুলিতেও।মঙ্গলবার রাজ্যে দলের পরিস্থিতি সম্পর্কে অমিত শাহ, জেপি নাড্ডাদের বিস্তারিতভাবে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। আজ তাঁর বৈঠক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে। তাঁকেও বাংলায় দল পরিচালনা ও বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে রিপোর্ট দেবেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।