পেনশন ও বিধবা ভাতার জন্য ১৫ লাখ আবেদন,২৭ জানুয়ারি থেকে ফের শুরু হবে ‘দুয়ারে সরকার’-এর পঞ্চম দফা

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : বিধবা ভাতা এবং পেনশনের জন্য ১৫ লাখ আবেদন জমা পড়েছিল। ১০০ শতাংশ আবেদনেই অনুমোদন দিল রাজ্য সরকার। আগামিকাল সেই সংক্রান্ত প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


আজ (বৃহস্পতিবার) নবান্নে ভার্চুয়াল সাংবাদিক বৈঠকে মমতা জানান, এখনও পর্যন্ত দু’কোটির বেশি মানুষ ‘দুয়ারে সরকার’-এর শিবিরে হাজির হয়েছেন। ৭৫ শতাংশ ক্ষেত্রেই আবেদনের কাজ হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ ৭৫ শতাংশ মানুষ পরিষেবা পেয়েছেন। একইসঙ্গে মানুষের ব্যাপক সাড়া মেলায় আবারও এক দফায় ‘দুয়ারে সরকার’-এর শিবির চলবে বলে জানিয়েছেন মমতা। তাঁর কথায়, ‘আগামী ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত দুয়ারে সরকারের চতুর্থ পর্যায় চলবে। কিন্তু মানুষের আরও আগ্রহ, ইচ্ছাপ্রকাশ দেখে এবং যাঁরা দেরিতে এই প্রকল্পের বিষয়ে জানতে পেরেছেন, তাঁদের কথা মাথায় রেখে আরও এক দফায় এই কর্মসূচি চলবে। আগামী ২৭ জানুয়ারি থেকে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দুয়ারে সরকার কর্মসূচি চলবে।’

এমনিতে গত ডিসেম্বর থেকে রাজ্যে শুরু হয়েছে ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি। তাতে স্বাস্থ্যসাথী, খাদ্যসাথী, মানবিক, কৃষক বন্ধু, রূপশ্রী, কন্যাশ্রী, ঐক্যশ্রী, শিক্ষাশ্রী, তফসিলি বন্ধু, জয় জোহার, জাতিগত শংসাপত্র প্রদান, ১০০ দিনের কাজের মতো ১২ টি প্রকল্পের জন্য আবেদন করা হচ্ছে। আপাতত সেখানে স্বাস্থ্যসাথীর জন্য সবথেকে বেশি আবেদন জমা পড়েছে। অন্যান্য প্রকল্পেও আবেদন জানানো হচ্ছে।

মমতা জানান, বিধবা ভাতা এবং পেনশনের ক্ষেত্রে কিছু সীমাবদ্ধতা ছিল। তৃণমূলের আমলে সেই ভাতা বাড়ানো হলেও ১৫ লাখ মানুষ আবেদন করেছিলেন। ১০০ শতাংশ আবেদনেই ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মমতা। আগামিকাল (শুক্রবার) সেই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে।