তিনে তিন৷ সবুজ ঝড়ে ধুলিশাৎ গেরুয়া শিবির, তবুও বিজয় মিছিল না করার পরামর্শ মমতার

UBG NEWS ডেস্ক : তিনে তিন৷ সবুজ ঝড়ে ধুলিশাৎ গেরুয়া শিবির৷ রাজ্যের তিনটি বিধানসভার উপনির্বাচনে জয় পেয়েছে তৃণমূল৷ এর মধ্যে তৃণমূল দু’টি আসন জিতেছে ২১ বছর পর৷ তা স্বত্বেও দলীয় নেতা নেত্রীদের বিজয় মিছিল না করার পরামর্শ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

কালিয়াগঞ্জ, খড়্গপুর ও করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে বিজেপিকে হারিয়ে জয়ী হয়েছে তৃণমূল৷ ফলাফল ঘোষণার পরই দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোথাও কোনও বিজয় মিছিল না করার পরামর্শ দিয়েছেন৷ দলের নেতা,কর্মীদের উদ্দ্যেশ্য জানান,বিজয়পর্বকে পালন করতে হবে শৃঙ্খলার সাথে, সংযতভাবে৷ তাছাড়া তিনি জানান, আমি নিজেই সময় করে কালিয়াগঞ্জ, খড়্গপুর ও করিমপুরের মানুষের কাছে ব্যক্তিগতভাবে গিয়ে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আসব৷

প্রসঙ্গত,কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে ২৪১৪ ভোটে জিতেছেন তৃণমূলের প্রার্থী তপনদেব সিংহ। অন্যদিকে খড়গপুর সদর বিধানসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী প্রদীপ সরকার জিতেছেন ২০৮৫৩ ভোটে৷ এছাড়া করিমপুরও নিজেদের দখলে রাখতে পেরেছে তৃণমূল৷ এখানে তৃণমূল প্রার্থী বিমলেন্দু সিংহ রায় ২৩৯১০ ভোটে জয়লাভ করেছেন৷

রাজ্যের তিনটি বিধানসভার উপনির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ১৯৯৮ সালে তৃণমূল প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর গত ২১ বছরে আমরা কালিয়াগঞ্জ এবং খড়গপুর আসন জিততে পারিনি। এবার মানুষ আমাদের আশীর্বাদ করেছে। এটা মানুষের জয়। তাই মানুষকেই এই জয় উৎসর্গ করছি আমরা।

গত লোকসভা ভোটের নিরিখে কালিয়াগঞ্জে প্রায় ৫৭ হাজার ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে ছিল বিজেপি৷ অন্যদিকে, খগড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্রের দীর্ঘদিন বিধায়ক ছিলেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা জ্ঞানসিং সোহন পাল। এরপর ২০১৬ সালে এই কেন্দ্রের দখল নেয় বিজেপি৷ জয়ী হন রাজ্যের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ এমনকি লোকসভা ভোটের নিরিখেও খড়গপুর সদরে এগিয়ে ছিল গেরুয়া শিবির৷ কিন্তু ২১ বছর পরে এবার এই আসনটি ছিনিয়ে নিল তৃণমূল৷ এছাড়া করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি তৃণমূল নিজেদের দখলে রাখতে পেরেছে৷