ডোবা থেকে উদ্ধার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের মৃত দেহ, চাঞ্চল্য এলাকায়

উত্তর দিনাজপুর, ২৯ সেপ্টেম্বরঃ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ালো উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়ার কালাগছ এলাকায়। মৃত ব্যাক্তির নাম পলাশ অধিকারী এবং তিনি কালাগছ এলাকারই বাসিন্দা ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। চোপড়া থানার নর্থ দিনাজপুর চা ফ্যাক্টরী মোড় এলাকায় একটি ডোবার মধ্যে থেকে তার দেহ উদ্ধার হয়। 

স্থানীয় বাসিন্দার জানিয়েছেন, ওই এলাকার একটি বাড়ির পেছনের ডোবার মধ্যে দেহিটি ভেসে থাকতে দেখা যায়। ঘটনার খবর মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে, ঘটনাস্থলে ভীড় জমতে শুরু করে এলাকার মানুষদের।

স্থানীয় বাসিন্দা নৈরিৎ বর্মন জানান, মৃতদেহ ভেসে থাকার কথা লোক মুখে তিনি জানতে পাড়েন। ঘটনাস্থলে গিয়ে, মৃত ব্যক্তি যে প্রামমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পলাশ অধিকারী, তা তিনি সনাক্ত করেন। তিন থেকে চার দিন আগে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে মৃতদেহের পচন দেখে অনুমান করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

কিভাবে ওই ব্যক্তির দেহ ডোবার মধ্যে আসলো তা নিয়ে ধন্দে রয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। অন্যদিকে, চোপড়া থানার পুলিশকে ঘটনার কথা জানানো হলে, চোপড়া থানায় পুলিশ মৃত দেহটিকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

দুর্ঘটনাবশত ওই ব্যক্তির জলে ডুবে মৃত্যু হয়েছে, নাকি তাকে খুন করা হয়েছে, সে বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।