Ad
তথ্যপ্রযুক্তি

অনলাইনে ভুলবশত অন্যের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দিয়েছেন, কিভাবে ফেরত পাবেন? জানুন

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : বাড়িতে বসেই সমস্ত রকমের বিল, রিচার্জ সবকিছুই অনলাইনে ডিজিটাল পেমেন্টে করে দিতে পারবেন ভুল করে টাকা ট্রান্সফার হয়েছে সেটার প্রমাণ দিলেই আপনি টাকা পেতে পারেন
অন্যের অ্যাকাউন্টে টাকা ট্রান্সফার হয়ে গেলে আপনাকে এই সম্পর্কে আপনার ব্যাঙ্ক কে জানাতে হবে

অনলাইনে ভুল করে অন্যের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দিয়েছেন, ফেরত পাবেন কীভাবে?

Ad

বর্তমান সময় ডিজিটাল পেমেন্টের লেনদেন দিন দিন বেড়েই চলেছে। অনলাইনে টাকা পাঠানো অনেকটা সহজ এবং সময়সাপেক্ষ। আপনি বাড়িতে বসেই সমস্ত রকমের বিল, রিচার্জ সবকিছুই অনলাইনে করে দিতে পারবেন। এক ব্যাঙ্ক থেকে আরেকটি ব্যাঙ্কে টাকা পাঠানো অনলাইনে নিমিষেই হয়ে যায়। আজকাল বেশিরভাগ মানুষ ডিজিটাল পেমেন্ট ব্যবহার করেন। একটি ক্লিকে সমস্ত সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার কারণে অনলাইন লেনদেনের সংখ্যাও বেড়েছে। তবে অনেক সময় তাড়াহুড়োয় টাকা পাঠানোর সময় ভুল হয়ে যাওয়ার কারণে এটি অন্যের অ্যাকাউন্টে যেতে পারে।

যদি কখনও আপনার সাথে এটি ঘটে থাকে তবে টেনশন নেবেন না কারণ কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনি সেই অ্যাকাউন্টগুলি আপনার অ্যাকাউন্টে ফিরে পেতে পারেন। আজকের এই খবরে আমারা আপনাদের বলব যে আপনি যদি কোনও ভুল অ্যাকাউন্টে পেমেন্ট ট্রান্সফার করেন তবে আপনার কী করা উচিত? গত বেশ কয়েক বছর ধরে এমন ঘটনা ঘটছে যেখানে লোকের টাকা ভুল অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার হয়ে গিয়েছে বা অনলাইনের মাধ্যমে জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে। এমনও কিছু ঘটনা হয়েছে যেখানে কেবল একটি মিস কল দিয়ে অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এরকম ঘটনা ক্রমাগত বেড়ে চলেছে।

ব্যাঙ্কে খরব দিতে হবে যদি ভুল করে অন্যের অ্যাকাউন্টে টাকা ট্রান্সফার হয়ে যায়, তবে আপনাকে এই সম্পর্কে আপনার ব্যাঙ্ককে অবহিত করতে হবে। এই সময়ে, আপনাকে ট্রানজেকশন অ্যামাউন্ট, তারিখ, সময় এবং আপনি যেই অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়েছেন তার নম্বরও আপনাকে দিতে হবে। ভুল করে টাকা ট্রান্সফার হয়েছে সেটার প্রমাণ দিলেই আপনি টাকা পেতে পারেন। এর জন্য় প্রথম কাজটি হল যে এই ঘটনাটির বিষয় ব্যাঙ্ককে বিস্তারিতভাবে জানান। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের মতে, যদি আপনার অনুমতি ছাড়া টাকা বেড় করা হয়ে তবে আপনাকে তিন দিনের মধ্যে এই ঘটনা সম্পর্কে ব্যাঙ্ককে খবর করতে হবে। এটি আপনার অর্থ সাশ্রয় করতে পারে।

OMBUDSMAN কাছে অভিযোগ করতে পারেন

টাকা ট্রান্সফার করার সময় যদি টাকা অন্য ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে চলে যায় তবে তার জন্য আলাদা পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। আপনি যে অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়েছেন সে যদি একই ব্যাঙ্কের গ্রাহক হয় তবে আপনার ব্যাঙ্কে এই সম্পর্কে অবহিত করা উচিত। এমন পরিস্থিতিতে ব্যাঙ্ক কর্মচারী বেনিফিশিয়ারির সাথে যোগাযোগ করে টাকা ফেরত পাঠানোর অনুরোধ করবেন। যদি টাকা পাওয়া ব্যক্তি এই বিষয় সম্মত হন তবে তবে 7 ওয়ার্কিং ডেজ (কার্যদিবস) এর মধ্যে আপনার অ্যাকাউন্টে এই টাকা ফেরত চলে আসবে।

যদি বেনিফিশিয়ারি অন্য কোনও শাখার অন্তর্ভুক্ত থাকে তবে আপনাকে সেই শাখায় গিয়ে সমাধানের জন্য ব্যাঙ্ক ম্যানেজারের সাথে কথা বলতে হবে, যদি ব্যাঙ্ক আপনার অভিযোগের বিষয়ে কিছু না করে তবে আপনি লোকপালকে অভিযোগ করতে পারেন। এটি এমন একটি সরকারী সংস্থা যা এই জাতীয় সমস্যাগুলি সমাধান করে।

ব্যাঙ্ক জালিয়াতির মামলায় কী করবেন?

আপনার সাথে যদি কোনও ধরনের ফ্রড হয় তবে টাকা ফেরত পেতে আপনাকে প্রথমে ATM কার্ড নম্বর এবং ইন্টারনেট ব্যাংকিং সার্ভিস বন্ধ করতে হবে। এর পর পুলিশে এই মামলার অভিযোগ দায়ের করুন। তারপরে FIR এর একটি অনুলিপি ব্যাঙ্কে জমা দিতে হবে। ব্যাঙ্ক এফআইআরের আওতায় বের হওয়া টাকার তদন্ত করবে এবং তারপর আপনি পুরো টাকা ফেরত পাবেন।

আরও পড়ুন