নতুন ফিচার নিয়ে হাজির WhatsApp, এবার থেকে HD Photo ও পাঠাতে পারবেন

ব্যবহারকারীদের জন্য হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp) প্রতি মুহূর্তেই নতুন নতুন ফিচার নিয়ে আসতে অভ্যস্ত। প্রায় প্রতিদিনই আমরা জনপ্রিয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্মটিতে কিছু না কিছু নতুন বৈশিষ্ট্যের আমদানি লক্ষ্য করি। প্রথমেই অ্যাপের রেগুলার ভার্সনে নয়, বরং পরীক্ষামূলকভাবে বিটা সংস্করণে ট্রায়ালের পর তবেই নতুন ফিচার বা বিশেষত্বগুলি মূল অ্যাপে যুক্ত হয়। বহুক্ষেত্রেই এই নতুন ফিচারসমূহ ব্যবহারকারীকে আকর্ষণ করে। এর ফলে অ্যাপ্লিকেশনের জনপ্রিয়তাও উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেতে থাকে যা হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp) কর্তৃপক্ষের একান্ত কাম্য। সম্প্রতি অ্যাপটিতে এমন একটি নতুন বৈশিষ্ট্য যুক্ত হতে চলেছে যা আরো একবার অ্যাপ ব্যবহারকারীদের চিত্তে আনন্দ জোগাবে! আসুন এই নতুন ফিচার বা বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে সংক্ষেপে জেনে নেওয়া যাক।

WhatsApp-এ জুড়ছে HD Photos ফিচার হোয়াটসঅ্যাপে যুক্ত হতে চলা আসন্ন যে বিশেষত্বের কথা আমরা বলছি, তা হলো হোয়াটসঅ্যাপ এইচডি ফটোস (Whatsapp HD Photos) ফিচার। তবে আগের কথার রেশ ধরেই বলা যায় যে অ্যাপের মূল সংস্করণে সংযোজনের আগে ফিচারটিকে এর নতুন বিটা ভার্সনে পরীক্ষামূলকভাবে রোল-আউট করা হচ্ছে।

হোয়াটসঅ্যাপ সংক্রান্ত সমস্ত নতুন ও চমকপ্রদ খবরের উৎস হিসেবে পরিগণিত WABetaInfo -এর একটি ব্লগ পোস্টে এ নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। WABetaInfo -এর দাবী অনুযায়ী হোয়াটসঅ্যাপের অ্যান্ড্রয়েড বিটা 2.21.15.5 সংস্করণে উক্ত নতুন ফিচারের উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে। এই ফিচারের আগমনে ব্যবহারকারীরা নতুন কি সুবিধা পাবেন ব্লগ পোস্টে সেটিও ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপ এইচডি ফটোস ফিচার সংযোজনের ফলে Whatsapp ব্যবহারকারীরা এবার থেকে যোগাযোগের তালিকায় থাকা বন্ধু, প্রিয়জনদের আলাদা আলাদা মানের ইমেজ ফাইল পাঠানোর সুবিধা পাবেন। এক্ষেত্রে মূল ছবিকে প্রায় অবিকৃত রেখে তারা যেমন সেরা কোয়ালিটির ইমেজ ফাইল প্রেরণ করতে সক্ষম হবেন, ঠিক তেমনই ছবিটিকে কম্প্রেস করে অপেক্ষাকৃত নিম্নমানের ইমেজ পাঠানোও সম্ভব হবে।

এভাবে তারা মূলত তিনটি আলাদা আলাদা বিকল্প বেছে নিয়ে বন্ধু, পরিজনকে ছবি পাঠাতে পারবেন। হোয়াটসঅ্যাপ এইচডি ফটোজ ফিচারের আগমনে ব্যবহারকারীরা যে তিনটি আলাদা বিকল্পে ইমেজ প্রেরণ করতে পারবেন, সেগুলি হলো – অটো (Auto), ডেটা সেভার (Data Saver) এবং বেস্ট কোয়ালিটি (Best Quality)।

অটো বিকল্পটি বেছে নিলে হোয়াটসঅ্যাপ প্রেরণযোগ্য ছবিটিকে সঠিক সাইজ অনুযায়ী কম্প্রেস করে নেবে। ডেটা সেভার বিকল্প বেছে নিলে ছবির মান অনেকটাই কমে যাবে। আবার বেস্ট কোয়ালিটি বিকল্প বেছে নিয়ে ব্যবহারকারী ছবিটিকে প্রায় অবিকৃত রেখেই তা প্রিয়জনের কাছে পাঠাতে পারবেন। অবশ্য বলে রাখা ভালো যে ছবি প্রেরণের ক্ষেত্রে ‘Best Quality’ বিকল্পটি বেছে নিলেও হোয়াটসঅ্যাপ সম্পূর্ণরূপে তা অবিকৃত রাখতে পারে না। আদতে ছবিটিকে তারা ৮০ শতাংশ পর্যন্ত অবিকৃত রাখতে পারে যা ইমেজ কোয়ালিটির নিরিখে যথেষ্ট ভালো। এর আগে Whatsapp ব্যবহারকারীরা মূল ছবিকে প্রায় ৭০ শতাংশ অবিকৃত রেখে বন্ধুর কাছে পাঠাতে পারতেন।

আলাদা আলাদা মানের ছবি প্রেরণের ক্ষেত্রে যে ডেটা খরচ সবসময় একইরকম হবে না সে কথা নতুন করে বলে দেওয়ার কিছু নেই। ভালো মানের ছবি পাঠাতে গেলে যেমন ডেটার খরচ বেশি হবে, তেমনই ডেটা সেভার মোডে ছবি পাঠালে অপেক্ষাকৃত কম ডেটা ব্যবহৃত হবে। হোয়াটসঅ্যাপের নতুন বিটা সংস্করণে যুক্ত ফিচারটি পরীক্ষামূলক পর্যায়ে থাকার কারণে ব্যবহারকারীরা আপাতত কিছু বাগ সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। তবে অচিরেই এই সমস্যার নিরসন হবে এবং হোয়াটসঅ্যাপের প্রাত্যহিক সংস্করণেও আমরা শীঘ্রই এই ফিচারের সুবিধা গ্রহণ করতে পারবো বলে মনে হয়।