মাঠে দর্শক ঢোকার নেই অনুমতি, দূরে পাহাড় থেকে খেলা উপভোগ করছেন ক্রিকেটের সুপার ফ্যান সুধীর কুমার

ইউবিজি নিউজ স্পোর্টস ব্যুরো : ভারত আর ইংল্যান্ডের মধ্যে চলা ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ পুণেতে খেলা চলছিল । করোনা সংক্রমণ বাড়ায় দর্শক দের মাঠে যাওয়ার অনুমতি ছিল না। শুন্য দর্শকেই চলছিল গত ৩টি t20 ম্যাচ এবং সেদিনের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ।

দর্শকরা বাড়িতে বসেই দেখেছিলেন ভারত ও ইংল্যান্ড এর এই একদিনের ৫০ ওভার এর ক্রিকেট খেলা।

কিন্তু এদিন ক্রিকেট ও সচিনের বড় ভক্ত সুধীর কুমার চৌধুরী স্টেডিয়াম এ না ঢুকতে পেরে স্টেডিয়াম থেকে বেশ কিছুটা দূরের পাহাড়ে বসে খেলা উপভোগ করছিলেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় তার সেই ছবি।

তার এই ক্রিকেট খেলার প্রতি এত প্রেম দেখে মুগ্ধ সমস্ত ক্রিকেট প্রেমিরা।

ভারতের প্রতিটি ম্যাচেই সারা শরীরে জাতীয় পতাকার তিন রং, ন্যাড়া মাথায় ভারতের মানচিত্র এবং বুকে লেখা ‘শচীন টেন্ডুলকার’ নিয়ে একজন হালকা পাতলা শরীরের ভক্তকে মাঠে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়। তার নাম সুধীর কুমার গৌতম। অনেকে তাকে সুধীর চৌধুরী নামেও চেনেন। ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বিখ্যাত ভক্তদের একজন তিনি। বিহারের এক দরিদ্র পরিবার উঠে আসা সুধীর ক্রিকেটকে ভালোবেসে বিয়ে পর্যন্ত করেননি।

সুধীর ২০০৩ সাল থেকে ভারতের প্রায় সব ঘরোয়া ম্যাচেই উপস্থিত থাকতেন। পরবর্তীতে ভারতের ক্রিকেট বোর্ড তাকে স্পনসর করে। এবং তিনি বিশ্বের সব প্রান্তেই ভারতের ম্যাচ দেখার সুযোগ পান। সুধীরে এই সকল কর্মকাণ্ড পরিবার মানতে নারাজ হলেও তিনি তার ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসা অব্যাহত রেখেছেন। শচীন টেন্ডুলকারের একনিষ্ট এই ভক্ত ২০১১ সালে ভারত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর শচীনের সাথে ট্রফি নিয়ে উৎসব করেছেন। শচীন ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও সুধীর ভারতীয় ক্রিকেট দলকে নিঃস্বার্থভাবে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন।

এদিনের এই ম্যাচে ভারত টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। ভারত ৫০ ওভারে পাঁচ উইকেটে ৩১৭ রান করেছে। শিখর ধাওয়ান ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯৮ রান করেছিলেন। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইংল্যান্ড ২৫১ রানে অল আউট হয়ে যায়। এর সাথে ভারত ম্যাচটি ৬৬ রানের ব্যবধানে জিতেছিল। ভারতের হয়ে, প্রথম বোলার কৃষ্ণা তার অভিষেক ম্যাচে চার উইকেট নিয়েছিলেন। শার্দুল ঠাকুর তিনটি এবং ভুবনেশ্বর কুমার দুটি উইকেট নিয়েছিলেন।