Ad
খেলা

কত টাকায় পাকিস্তানের কাছে বিক্রি হয়েছ, হারের পর শামিকে চূড়ান্ত গালিগালাজ নেটদুনিয়ায়

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

‘পাকিস্তানের দ্বাদশতম ব্যক্তি’, ‘বিক্রিই হয়ে যাস যদি, তাহলে খেলিস কেন?’ ‘পাকিস্তানের থেকে কত টাকা খেয়েছ?’

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের বড়সড় হারের পর মহম্মদ শামিকে লক্ষ্য করে সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনই সব আক্রমণ উড়ে এল। সেইসঙ্গে গালিগালাজ তো ছিলই। যে শামি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে তেমন আহামরি পারফরম্যান্স করতে পারেননি।

Ad

বাকি ভারতীয় খেলোয়াড়দের অবস্থাও শোচনীয় ছিল। তারইমধ্যে শামিকে আক্রমণের নিশানা করে নেওয়ায় ভারতীয় পেসারের পাশে দাঁড়িয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ। তাঁরা বিরাট কোহলিদের দিকে প্রশ্ন ছুড়লেন, বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে হাঁটু মুড়ে বসে প্রতিবাদ জানালেন। সতীর্থের বিরুদ্ধে যে আক্রমণ চলছে, তাতে সতীর্থের পাশেও দাঁড়ান।

রবিবার দুবাইয়ে পাকিস্তানের সামনেই দাঁড়াতে পারেনি ভারত। ব্যাটসম্যানদের মধ্যে কিছুটা চেষ্টা করেছিলেন বিরাট এবং ঋষভ পন্ত। বাকি ব্যাটসম্যানরা চূড়ান্ত হতাশ করেছেন। বোলারদের মধ্যে কেউই সেভাবে দাগ কাটতে পারেননি। প্রথমদিকে তেমন বল করতে পারেননি শামিও। ১৮ তম ওভারে তাঁকে যখন ফের বল দেন বিরাট, সেই সময় ১৭ রান দরকার ছিল পাকিস্তানের। প্রথম বলেই ছক্কা খান শামি। পরের দুটি বলে বল বাউন্ডারির বাইরে যায়।

সেই ওভারের এক বল বাকি থাকতেই ১০ উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় পাকিস্তান। আর সেই ওভারের পর শামির বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড়ায় – ৩.৫ ওভারে ৪৩ রান। তারপরই শামিকে লক্ষ্য করে চূড়ান্ত আক্রমণ উড়ে আসতে থাকে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ইনস্টাগ্রামে শামির ছবির নীচে গালিগালাজ করা হয়। পাকিস্তানের থেকে টাকা খেয়েছেন বলেও অভিযোগ তোলা হয়।

পরে অবশ্য শামির সমর্থনে এগিয়ে আসেন অনেকে। এক নেটিজেন বলেন, ‘ম্যাচ হেরে যাওয়ার পর ধোনি এবং কোহলি পাকিস্তানিদের সঙ্গে মজা করতে পারেন। অন্যদিকে প্রত্যাাশা মতো পারফরম্যান্স করতে না পারায় ইন্টারনেট দুনিয়ায় মহম্মদ শামিকে গালিগালাজ করা হয়। সইতে হয় ঘৃণা।’ এক নেটিজেন বলেন, ‘দারুণ বল করেছ চ্যাম্প। তুমি তোমার সেরাটা দিয়েছ। আজ আমাদের দিন ছিল না।’

আরও পড়ুন