Ad
ঘাটালজলপাইগুড়িদক্ষিণ দিনাজপুরদক্ষিণ বঙ্গ

বাংলার দিকে ধেয়ে আসছে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’, কর্মীদের ছুটি বাতিল করল রাজ্য সরকার

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

UBG NEWS: আমফান তছনছ করে দিয়েছিল গোটা রাজ্যকে। জায়গায় জায়গায় ছিঁড়ে পড়েছিল বিদ্যুতের তার। অনেক জায়গায় দশ দিন আবার এক মাস পর্যন্ত ছিলনা বিদ্যুৎ সংযোগ।

এবার যাতে সেই সমস্যায় পড়তে না হয়, তার জন্য আগে ভাগেই প্রস্তুতি নিচে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই বিদ্যুৎ দফতরের কর্মীদের যাবতীয় ছুটি বাতিল করা হয়েছে। পাশাপাশি নজরদারি চালানোর জন্য বিদ্যুৎকর্মীদের কয়েকটি নির্দিষ্ট দলে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে।

Ad

২৫ তারিখ থেকেই কন্ট্রোল রুম খোলা হচ্ছে বিদ্যুৎ দফতরে। যে কোন সাহায্য চেয়ে দু’টি নম্বরে ফোন করতে পারবেন সাধারণ মানুষ। শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলন করে এমনটাই জানালেন বিদ্যুৎমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় যশ। তওকতের মতোই এবার বঙ্গোপসাগরে তৈরি হচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত। সোমবার থেকেই বইবে হওয়া, চলবে বৃষ্টি। মঙ্গলবার থেকে বুধবারের মধ্যে দীঘা বা পারাদ্বীপের মাঝে কোন একটি জায়গায় ল্যান্ড ফল হতে পারে ঘূর্ণিঝড়টি। ইতিমধ্যেই এই নিয়ে প্রশাসনিক বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপদকালীন পরিষেবা যুক্ত সমস্ত কর্মীদের ছুটি বাতিল করেছেন তিনি। এবার বিদ্যুৎ কর্মীদের ছুটি বাতিল করল বিদ্যুৎ দফতর। শুক্রবার বিদ্যুৎমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস সাংবাদিক সম্মেলন করে জানান, যে সমস্ত জেলাগুলিতে যশের আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে, অর্থাৎ উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাগুলিতে ২৫ তারিখ থেকেই নজরদারি চালাবে বিদ্যুৎকর্মীদের কয়েকটি নির্দিষ্ট দল।’ বিডি ওদের অধীনে থাকবে তিনটি করে এইচটি দল, এবং তিনটি করে এলটি দল। প্রতিটি দলের ৬ থেকে ৭ জন করে বিদ্যুৎকর্মী থাকবেন। এরা ২৫ মে দুপুর একটার মধ্যেই বিডিওদের কাছে রিপোর্ট করবে। তার ২৪ ঘণ্টা আগেই প্রত্যেক দলের নেতার ও কর্মীদের নাম, ফোন নম্বর পাঠিয়ে দেওয়া হবে বিডিওদের কাছে।

শুক্রবার যশের মোকাবিলার জন্য প্রস্তুতি বৈঠক করেন রাজ্যের বিদ্যুৎ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট দফতরের আধিকারিকরা। বৈঠক শেষে মন্ত্রী জানান, কলকাতা পুরসভার ক্ষেত্রে প্রতিটি ওয়ার্ডে এ ধরনের দুটি করে দল রাখা হবে।

এছাড়া সিইএসসির বিদ্যুৎ সংযোগ রয়েছে এমন এলাকাগুলিতে প্রতিটি থানায় দু’টি করে দল রাখা হবে। জেলাগুলির জন্য পাঠানো হয়েছে ১৮৩০৫টি ইলেট্রিক পোল, ২৫৫ কিমি কন্ডাক্টর ওয়ার ও ৪৫০টি ট্রান্সফর্মার। পাশাপাশি ২৫ তারিখ থেকেই কন্ট্রোলরুমে ফোন করে চাওয়া যাবে সাহায্য। 8900793503 ও 8900793504 নম্বরে ফোন করে সাহায্যের জন্য আবেদন করতে পারবেন সাধারণ মানুষ।

আরও পড়ুন