বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনে রাজনৈতিক নেতাদের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের পদক্ষেপ অব্যাহত, এবার অনুব্রতকে শোকজ নোটিশ নির্বাচন কমিশনের

ইউবিজি ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনে রাজনৈতিক নেতাদের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের পদক্ষেপ অব্যাহত। এবার বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal)

শোকজ নোটিশ দিল কমিশন, সূত্র মারফৎ এমনটাই জানা যাচ্ছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচার নিষিদ্ধ করায় কমিশনকে নিশানা করে অনুব্রত বলেন, ‘কমিশন অন্ধ ধৃতরাষ্ট্রের মতো ব্যবহার করছে।’ কয়েকদিন আগে তৃণমূলের দাপুটে নেতা বলেছিলেন,’ ভয়ঙ্কর খেলা হবে।’ সেই মন্তব্যকে হাতিয়ার করে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছিল BJP। তার ভিত্তিতেই অনুব্রতর বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ বলে জানা যাচ্ছে। আজ রাত ১০টার মধ্যে জবাব তলব করা হয়েছে।

অন্যদিকে, এদিন রাজ্য BJP সভাপতি দিলীপ ঘোষকে নোটিশ ধরাল নির্বাচন কমিশন। শীতলকুচি নিয়ে রবিবার বরানগরের সভা থেকে করা তাঁর মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতেই ধরানো হয়েছে এই নোটিশ। কেন এই ধরনের মন্তব্য করেছেন তিনি, বুধবার সকাল ১০টার মধ্যে দিলীপ ঘোষকে জবাব দিতে নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তাঁর জবাবের উপর ভিত্তি করেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে কমিশন।

উল্লেখ্য, রবিবার বরানগরে প্রচার সভায় দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘শীতলকুচি কী দেখেছেন! এরপর বেশি বাড়াবাড়ি করলে জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে।’ দিলীপ ঘোষের কথায়, ‘বাংলায় আর দুষ্টু ছেলে থাকবে না। যারা ভেবেছিল কেন্দ্রীয়বাহিনীর বন্দুকটা শুধু দেখানোর জন্যই, কাল তারা বুঝে গেছে ওর ভিতরে থাকা গুলির কী জোর!সকালে ভোট দিতে যাবেন। কেউ যদি বাধা দেয় শুনবেন না। মাথায় রাখবেন কেউ বাড়াবাড়ি করলে জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে।’BJP-র রাজ্য সভাপতির মুখে এই কথায় রীতিমতো তোলপাড় রাজ্য রাজনৈতিক মহল। এবার এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে নোটিশ ধরানো হল দিলীপ ঘোষকে।

শীতলকুচি নিয়ে মন্তব্যের জেরে BJP প্রার্থী রাহুল সিনহার প্রচার নিষিদ্ধ করল নির্বাচন কমিশন। আগামী ৪৮ ঘণ্টার জন্য রাহুল সিনহার প্রচারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত আরও কোনওরকম প্রচারে অংশ নিতে পারবেন না এই BJP নেতা। অর্থাৎ পঞ্চম দফা ভোটের আগে আর প্রচার করতে পারবেন না রাহুল। গতকালই প্ররোচনামূলক মন্তব্যের জেরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচার ২৪ ঘণ্টার জন্য নিষিদ্ধ করেছে কমিশন।