করোনা রোগীদের জন্য শিলিগুড়ি ইন্ডোর স্টেডিয়ামেই সেফ হোম হবে, হুশিয়ারী পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের

শিলিগুড়ি, ২৬ জুলাইঃ যে কোন পরিস্থিতিতে ইন্ডোর স্টেডিয়ামে তৈরি হবে করোনা রোগীদের জন্য সেফ হোম। সেফ হোম করতে গিয়ে বাধার সম্মুখিন হলে নিজে রাস্তায় নেমে তার মোকাবিলা করব। রবিবার কার্যত এই ভাষাতেই বিক্ষোভ কারীদের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব।

শিলিগুড়ি শহরে যেভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তাতে কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে প্রশাসনের। এই পরিস্থিতিতে শিলিগুড়িতে একটি সেফ হোম করার পরিকল্পনা নিয়েছে দার্জিলিং জেলা প্রশাসন। এরজন্য প্রাথমিকভাবে বেছে নেওয়া হয়েছে শিলিগুড়ির কিরনচন্দ্র ভবন ও শিলিগুড়ি ইন্ডোর স্টেডিয়ামকে। সম্প্রতি ইন্ডোর স্টেডিয়াম পরিদর্শন করতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছিল শিলিগুড়ি মহকুমা শাসক সুমন্ত সহায়কে। স্থানীয় বাসিন্দাদের আশঙ্কা ইন্ডোর স্টেডিয়ামে সেফ হোম করা হলে এলাকায় করোনা সংক্রমন ছড়াতে পারে। এই প্রসঙ্গে রবিবার মুখ খুললেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব।

এদিন তিনি বিষয়টি নিয়ে মোবাইলে কথা বলেছেন শিলিগুড়ি পুর নিগমের প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্যের সাথে। অশোক বাবু দুদিন অপেক্ষা করতে বলেছেন বলে দাবী করেছেন গৌতম দেব। এদিন তিনি বলেন, যে কোন পরিস্থিতিতে ইন্ডোর স্টেডিয়ামেই করোনা রোগীদের জন্য সেফ হোম করা হবে। করোনার বর্তমান পরিস্থিতিতে সেফ হোম করার ক্ষেত্রে বাধার সম্মুখিন হলে প্রশাসন তা কড়া হাতে মোকাবিলা করবে।

প্রয়োজনে তিনি রাস্তা দাঁড়িয়ে ক্ষোভ বিক্ষোভের মোকাবিলা করবেন। তিনি আরও বলেন, এই কাজে কেও কেও রাজনৈতিকভাবে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছেন। যা এই অতিমারি পরিস্থিতিতে কোনভাবেই কাম্য নয়। অশোক ভট্টাচার্যের অনুরোধের কারনে দুদিন অপেক্ষা করা হবে। তারপরেই ইন্ডোর স্টেডিয়ামে সেফ হোম করার কাজ শুরু করবে জেলা প্রশাসন বলেও জানিয়েছেন গৌতম দেব।