বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র শিলিগুড়ি, পাথর বৃষ্টি-কাঁদানে গ্যাস-জলকামান

ইউবিজি নিউজ, শিলিগুড়ি : উত্তরকন্যায় বিজেপির যুব মোর্চার অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র হয়ে উঠল শিলিগুড়ি ফুলবাড়ি এলাকা৷ পুলিশের সঙ্গে কার্যত খণ্ডযুদ্ধ চলছে। এই খবর লেখা পর্যন্ত একই ভাবে চলছে দু’পক্ষের মধ্যে আক্রমণ। একের পর এক টিয়ার গ্যাস কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটানো হচ্ছে। জলকামান ব্যবহার করা হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। আবারও জলকামান ব্যবহার করা হবে মনে করা হচ্ছে। বিজেপির তরফে রাস্তায় ব্যারিকেডে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়।

অভিযানের নেতৃত্বে কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়, দিলীপ ঘোষ, সৌমিত্র খান, নিশীথ প্রামাণিকের মতো প্রথম সারির নেতারা রয়েছেন। বহু বিজেপি কর্মী – সমর্থক, মহিলা কর্মীরা উপস্থিত রয়েছেন। প্রথম থেকেই বিজেপিকে রাস্তাতেই আটকাতে হবে। প্রশাসনের তরফে একথা পরিষ্কার জানানো হয়েছিল। সেই মতো রণ সাজে সেজে উঠেছে প্রশাসন। কাঁদানে গ্যাস, টিয়ার গ্যাসের পর্যাপ্ত মজুত ছিল তাদের কাছে।

এছাড়াও জলকামান রাখা রয়েছে। রাস্তায় বাঁশ, গাছের গুড়ি দিয়ে ব্যারিকেড করে রাখা হয়েছিল। ফুলবাড়ি, তিনবাত্তি মোড়ে সড়ক পথে বিজেপি যুব মোর্চার নেতৃত্বে বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু হয়। ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। সে কথা পুলিশের তরফে বলা হয়। বিভিন্ন জায়গাতেই তাদের আটকানো হয়েছে। ফুলবাড়ি এলাকায় ঢোকার সময় তাদের কোনওভাবেই আর রেয়াদ করা হয়নি। জলকামান ব্যবহার হতে শুরু হয় তাদের উপর।

কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সে সময় কিছুটা পিছনে ছিল। কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটানো হয়। ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। তবে রাস্তা থেকে তারা সরে যায়নি। কিছুটা দূরে অবস্থান করেছে। পুলিশকে লক্ষ্য করে উড়ে আসতে থাকে একের পর এক ইট পাথরের টুকরো। ব্যারিকেডের ওপারে পুলিশ অপেক্ষা করেছে। মাঝেমধ্যেই বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা ব্যারিকেডের দিকে এসে পাথর ছুড়ছে।

মহিলারা এসে ব্যারিকেড খুলতে শুরু করে। বাঁশের দড়ি খোলা শুরু হয়। আরও একবার মারমুখী হয়ে ওঠে পুলিশ। এবার সরাসরি ব্যারিকেড থেকে বেরিয়ে রাস্তায় তাড়া করতে শুরু করে পুলিশ। বিজেপির কর্মী সমর্থকদের দিকে মুহুর্মুহু টিয়ার গ্যাস ফাটানো হয়। পরিস্থিতি সম্পূর্ণ রণক্ষেত্র ওই এলাকায়। রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে বিজেপির লোকজন।