Ad
রাজনীতিরাজ্য

মহিলা মুখ্যমন্ত্রী থাকা সত্ত্বেও হেনস্থার মুখে পড়তে হচ্ছে শিক্ষিকাদের, এর থেকে লজ্জার আর কি হতে পারে ?’ – দিলীপ

গতকাল আত্মহত্যার ঘটনায় গর্জে উঠলেন দিলীপ

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : প্রতিদিন নিউটাউন ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণে আসেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর স্পষ্ট কথা শুনতে অধীর অপেক্ষায় থাকেন রাজ্যবাসী।

তবে বিশেষ করে যখন শাসকদল বিরোধী কোনও বড়সড় ঘটনা ঘটে যায়, তখন আরও বেশি নজরে থাকেন দিলীপ। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারেই ‘অন্যায়ভাবে’ বদলি অভিযোগে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন ৫ শিক্ষিকা।

Ad

তাই বুধবারেও সেই বরাবরের মতো এই ঘটনার পরেও শাসকদলের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন দিলীপ।

এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘রাজ্যে একজন মহিলা মুখ্যমন্ত্রী আছেন। মহিলাদের আরো সন্মান বাড়ানোর কথা ভাবা হচ্ছে। সেখানে হেনস্থার মুখে পড়তে হচ্ছে শিক্ষিকাদের, এর থেকে লজ্জার আর কি হতে পারে। এরাজ্যে সব থেকে কম বেতন পান শিক্ষকরা। দীর্ঘদিন ধরে তাদের ডিএ বাড়ানো হয়নি। তার উপর তাদের বদলি করা হচ্ছে অন্যায়ভাবে। এর প্রতিবাদে তারা আন্দোলনে নেমেছেন। এরাজ্যে সরকারের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুললেই তার বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, ‘অন্যায়ভাবে’ বদলি করার অভিযোগে মঙ্গলবার সকালে বিকাশ ভবনের সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন পাঁচজন শিক্ষিকা। এঁদের সবার বাড়ি দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিভিন্ন এলাকায়। অভিযোগ, তাঁদের বেআইনিভাবে কোচবিহারের দিনহাটাতে বদলি করা হয়েছে। এত দূর চাকরি করতে যাওয়া তাঁদের পক্ষে কোনওভাবেই সম্ভব নয়। সেই কারণে বাড়ির কাছে বদলির দাবি জানিয়েছিলেন তাঁরা। তাঁদের দাবি ছিল, শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হোক। কিন্তু, পুলিশ তাঁদের বাধা দিলে পুলিশের সামনেই আচমকা বিষ পান করেন তাঁরা। সঙ্গে সঙ্গেই অসুস্থ হয়ে মাটিতে পড়ে যান। তারপরেই তাঁদের পাঁচজনকেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অপরদিকে, রাজ্যে বাড়ছে কোভিড সংক্রমণ। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারের স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিন অনুযায়ী রাজ্যে একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৬১৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের। এদিকে দ্রুত উপনির্বাচন চাইছে তৃণমূল। বিজেপির অনেক নেতা চাইছেন পুরভোট। এপ্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন ‘এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী থাকার জন্য পাগল হয়ে যাচ্ছেন। তাই কোভিড বাড়লেও তারা নির্বাচন চাইছেন। কোভিড বাড়তেই পারে। বিশেষজ্ঞরা সচেতন থাকতে বলছেন। বিজেপি কোভিড সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে প্রতি বুথে দুজনকে নিয়োগ করেছে।’ অপরদিকে দলে সন্মান না পেয়ে রিমঝিম মিত্র দল ছাড়তে চান। এপ্রসঙ্গে দিলীপ সাফ জানিয়েছেন,’উনি আগেই ওয়াটস অ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন। দলে প্রতিটি কর্মীকেই সন্মান দেওয়া হয়। কারোর যদি দলে ভালো না লাগে তিনি দল ছাড়তেই পারেন। এতে দলের কোনো ক্ষতি হবে না।

আরও পড়ুন