Ad
রাজনীতি

উত্তপ্ত ত্রিপুরা, রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তারে নাটক! তৃণমূলকে নিশানা করে বিস্ফোরক দিলীপ

অসমের মতোই ত্রিপুরাতেও রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তারে নাটক করছে তৃণমূল

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : শনিবার থেকে বাংলা মিডিয়ার চোখ বেশি করে গিয়ে পড়েছে ত্রিপুরার (tripura) ওপরে। তৃণমূলের অভিযোগ হামলা চালিয়েছে বিজেপি(bjp)। শনিবারই পুরো ঘটনাকে নাটক বলে কটাক্ষ করেছিলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ (dilip ghosh)। এদিন তিনি বলেছেন, অসমের মতোই ত্রিপুরাতেও রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তারে নাটক করছে তৃণমূল (trinamool congress)।

অসমেও নাটক করেছে তৃণমূল

Ad

এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি ছিলেন, নিজের সাংসদ এলাকায়। সেখানে তিনি বলেছেন, এর আগে অসমে গিয়ে নাটক করেছে তৃণমূল। পঞ্চায়েত নির্বাচনেও ব্যর্থ হয়েছে। এদিক কার্যত তাঁর দাবি তৃণমূল ত্রিপুরায় রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তারে ঝাঁপিয়ে পড়লেও, তা তারা করতে পারবে না। তিনি প্রশ্ন করেছেন, যেখানে তৃণমূলের কোনও সাংসদ, বিধায়ক, পঞ্চায়েত সদস্য, কিছুই নেই, সেখানে কেন শুধু শুধু তৃণমূলের ওপরে আক্রমণ হবে। তিনি মনে করেন, এরকম মারামারি করে তৃণমূল ত্রিপুরায় সংগঠন করতে পারবে না।

নাটক আর সাজানো ঘটনা

তৃণমূলের অভিযোগ ২১ জুলাইয়ের পর থেকে ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা-কর্মী-সমর্থকদের ওপরে হামলা করা হচ্ছে। আইপ্যাকের টিমকে হোটেলে বন্দি করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। এরপর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সেখানে গেলে তাঁর গাড়িতেও হামলা হয়। যা নিয়ে এদিন দিলীপ ঘোষ বলেছেন, দিদি নাটক করেন, ভাইরা আরও বেশি নাটক করেন। তাঁর আরও অভিযোগ, তৃণমূল হিংসার রাজনীতিকে ত্রিপুরায় নিয়ে যাচ্ছেন। ত্রিপুরায় শনিবার ও রবিবার যা হচ্ছে তাকে সাজানো ঘটনা বলে কটাক্ষ করেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। দিলীপ ঘোষের মতোই একই অভিযোগ করেছেন রাজ্য বিজেপির নেতা জয় প্রকাশ মজুমদার। তিনি দাবি করেছেন, ত্রিপুরায় কোনও অশান্তি ছিল না, তৃণমূলই ত্রিপুরায় অশান্তিকে ডেকে নিয়ে যাচ্ছে।

শনিবার থেকে উত্তপ্ত ত্রিপুরা

তৃণমূলের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, শনিবার আমবাসায় যাওয়ার পথে তাদের একাধিক গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে থেকে যাওয়া ছাত্র ও যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, জয়া দত্ত এবং সুদীপ রাহার ওপরে হামলা করা হয়। ইটের আঘাতে সুদীপ রাহার মাথা ফাটে। তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়েছে, পথে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাদের গাড়িতে হামলা চালায়। অন্যদিকে বিজেপির তরফে ভিডিও ও স্টিল ছবি প্রকাশ করে অভিযোগ করা হয়েছে, রাস্তার মাঝে গাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছেন জয়া দত্ত। পাশাপাশি রাস্তার ধারে তৃণমূল কর্মীদেরই ইট নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছে।

আরও পড়ুন