Ad
উত্তরবঙ্গ

দিনহাটায় পোস্টার লাগানো নিয়ে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

দিনহাটা- দিনহাটা শহরে পোস্টার লাগানো নিয়ে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এল। দিনহাটা শহর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের তরফ থেকে শহরের বিভিন্ন এলাকায় একটি পোস্টার লাগানো হয়েছে। সেই পোস্টারে বিজেপি নেতা অজয় রায়, ধনঞ্জয় দেবনাথ এবং আশীষ সরকারের ছবি দিয়ে লেখা হয়েছে, ” জননেতা শ্রী উদয়ন গুহ মহাশয়ের উপর প্রাণঘাতী হামলাকারীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না কেন? দিনহাটা থানা জবাব চাই, জবাব দাও।”

এই পোস্টারের বিষয়ে দিনহাটা শহর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অসীম নন্দী বলেন, আমি দিনহাটা শহর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অথচ এ ধরনের পোস্টার কে লাগিয়েছে তা আমার জানা নেই। উদয়নবাবুর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে, তিনিও আমাকে এই ধরনের পোস্টার লাগানোর বিষয়ে কিছু বলেননি। তবে উদয়ন গুহের উপর যারা হামলা চালিয়েছে আমরা চাই দোষীদের শাস্তি হোক।

Ad

তবে এ বিষয়ে উদয়ন গুহের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত তৃণমূল নেতা জয়দীপ ঘোষ বলেন, দিনহাটা শহর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অসীম নন্দীর প্ররোচনাতেই উদয়ন গুহের উপর এই আক্রমণ হয়েছে। যাদের নামে পোস্টার দেওয়া হয়েছে তারা এতদিন পর্যন্ত ওনার সঙ্গেই ছিল। ভোটে উনি দলের বিরোধিতা করেছেন। মানুষকে বিজেপিতে ভোট দিতে প্ররোচিত করেছেন। ওই পোস্টার আমরাই লাগিয়েছি। দিনহাটার সাধারণ তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা লাগিয়েছে। আমরা চাই শহর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতির পদ থেকে অসীম নন্দীকে অপসারণ করা হোক।

উল্লেখ্য, ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই দিনহাটার বিভিন্ন এলাকায় রাজনৈতিক সন্ত্রাস শুরু হয়েছে। দিনহাটা শহরের তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ের অদূরেই তৃণমূল নেতা প্রাক্তন বিধায়ক উদয়ন গুহর উপর হামলার ঘটনা ঘটে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়। ওই ঘটনায় বেশ কয়েক জনের নামে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়। পুলিশ ইতিমধ্যেই কয়েক জনকে গ্রেফতার করেছে, এখনও বেশ কয়েক জন অভিযুক্ত অধরা। অবশেষে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে এই পোস্টারকে ঘিরে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এলো।

আরও পড়ুন