ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি উত্তরবঙ্গে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : ভোর থেকে কলকাতা ও আশপাশের এলাকায় বৃষ্টি। তবে মাঝে মধ্যে বৃষ্টি হলেও তা বেশিক্ষণ স্থায়ী হচ্ছে না। তার সঙ্গে রয়েছে ভ্যাপসা গরম। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় অস্বস্তির আবহাওয়া চলতে থাকবে।

হাওয়া অফিস সূত্রে জানা গিয়েছে, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী দু’ থেকে তিন ঘন্টার মধ্যেই ভারী বৃষ্টিপাত হবে ওই জেলাগুলিতে।

শনিবার উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সোমবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টি চলবে। দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়িতে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। কিছুক্ষণের মধ্যে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে মালদা এবং উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে।

কোথায় কত পরিমাণ বৃষ্টিপাত?
বাগাটিতে ৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বর্ধমানে বৃষ্টিপাত হয়েছে ৯ মিলিমিটার। কোচবিহারে বৃষ্টির পরিমাণ ১৯.৫ মিলিমিটার। জলপাইগুড়িতে বৃষ্টি হয়েছে ২৭.২ মিমি। কলাইকুন্ডায় বৃষ্টি হয়েছে ৪.২ মিলিমিটার। কালিম্পঙে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ২৩ মিলিমিটার। পানাগড়ের ৭.২ মিমি বৃষ্টিপাত হয়েছে। সল্টলেকে বৃষ্টিপাত হয়েছে ০.২ মিলিমিটার। শিলিগুড়িতে বৃষ্টির পরিমাণ ১১.৮ মিমি।

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, মৌসুমী অক্ষরেখা উত্তরপ্রদেশের বারাণসী, বিহারের পাটনা থেকে উত্তরবঙ্গ হয়ে নাগাল্যান্ড পর্যন্ত বিস্তৃত। এর প্রভাবে সোমবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে উত্তরবঙ্গে। আগামী কয়েকদিন সিকিম এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতেও ভারী বৃষ্টি হতে পারে। আবার আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে তৈরি হবে নিম্নচাপ। এর প্রভাবে বাংলা, বিহার, ওডিশা, ঝাড়খণ্ডে বৃষ্টি বাড়বে। বুধবার থেকে দক্ষিণবঙ্গেও বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। উত্তরবঙ্গ লাগোয়া মুর্শিদাবাদ ও বীরভূম জেলায় দু-এক পশলা বৃষ্টি হতে পারে। বুধবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে পূর্ব ও মধ্য ভারতের রাজ্যগুলিতেও।