কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মৃত ৪

ইউবিজি নিউজ ব্যুরো : ভোট শুরুর কয়েকঘণ্টার মধ্যেই কোচবিহারের (Cooch Behar) মাথাভাঙা বিধানসভার জোড়পাটকিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মৃত্যু হল ৪ জনের। আহত আরও চারজন। বিনা প্ররোচনায় গুলি চালানোর অভিযোগ উঠল কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে। তৃণমূলের দাবি, মৃত ৪ জনই তাদের সক্রিয় কর্মী। ইতিমধ্যেই এই ঘটনার রিপোর্ট তলব করেছে কমিশন।

জানা গিয়েছে, জোড়পাটকির ১ নম্বর বুথের ভোটার হামিদুল হক, মনিরুল হক, সামিয়ুল মিঞ্চা, আমজাদ হোসেন নামে ওই চার যুবক। তৃণমূল কর্মীদের দাবি, এদিন সকাল থেকে মোটের উপর শান্ত ছিল এলাকা। ভোট দিতে গিয়েছিলেন ওই চার যুবক। তারা ভোটের লাইনে থাকাকালীন কেন্দ্রীয় বাহিনী এলোপাথারি গুলি চালায়। রক্তাক্ত হন বহু তৃণমূল কর্মী। আহতদের তড়িঘড়ি উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা ওই চার যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করে।

মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করেন ওই এলাকার তৃণমূল কর্মী ও মৃতের পরিবারের সদস্যরা। তাঁদের দাবি, শুক্রবার রাত থেকেই মদ্যপ অবস্থায় এলাকায় তাণ্ডব চালাচ্ছিল বাহিনীর জওয়ানরা। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপির হয়ে কাজ করছে বাহিনী। তৃণমূল কর্মীদের উপর অকারণে হামলা করা হচ্ছে।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে ওঠা গুলি চালানোর অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছে কমিশন। বলা হয়েছে, প্রায় ৩০০ জনের একটি দল কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর হামলা করেছিল। সেই কারণেই গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছে CRPF। এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট তলব করেছে কমিশন (Election Commission)। ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন বেহালা পশ্চিমের তৃণমূল প্রার্থী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।দাবি জানিয়েছেন ঘটনার তদন্তের। উল্লেখ্য, মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে মনে করা হচ্ছে।