Ad
নিউজ

মন্দিরের ৫ কিলোমিটারের মধ্যে নিষিদ্ধ গোমাংস বিক্রি,কড়া সিদ্ধান্ত অসম সরকারের

কারও খাদ্যভ্যাসে হস্তক্ষেপ চান না অসমের মুখ্যমন্ত্রী। তবে যদি কেউ গোমাংস না খান, তা হলে তিনি খুশি হবেন।

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : মন্দিরের পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে গোমাংস বিক্রি করা যাবে না। অসম বিধানসভায় পাশ হওয়া ‘অসম ক্যাটল প্রিজারভেশন বিল ২০২১’-এ বলা হয়েছে, হিন্দু, শিখ, জৈন ও অন্য়ান্য ধর্মের কোনো মন্দিরের পাঁচ কিলোমিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে গোমাংস ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে না।

শুক্রবার ‘জয় শ্রীরাম’ ও ‘ভারত মাতা কি জয়’ ধ্বনির মধ্যেই অসম বিধানসভায় পাশ হয় এই বিল। কংগ্রেস-সহ বিরোধী দলের বিধায়করা এর প্রতিবাদে সদন থেকে ওয়াকআউট করেন।

Ad

তবে গোমাংস কেনাবেচায় নিষেধাজ্ঞা জারি করতে নয়া বিল পাশের পরে অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন, কেউ চাইলে গোমাংস খেতে পারেন। কারও খাদ্যাভ্যাসে হস্তক্ষেপ করবে না তাঁর সরকার।

তিনি আরও বলেন, “আগে থেকেই যেখানে মন্দির রয়েছে, সেখানেই এই নতুন নিয়ম কার্যকর হবে। তবে কোথাও যদি নতুন করে মন্দির নির্মাণ হয়, সেখানে এই নিয়ম কার্যকর হবে না। আমরা কারও অধিকার খর্ব করতে চাই না। কিন্তু যদি কেউ গোমাংস না খান, তা হলে আমি খুশি হব”।

এ ধরনের আইন আনার কারণ হিসেবে তিনি বেশ কিছু জায়গায় ধর্মীয় সংঘাতের কথা তুলে ধরেন। বলেন, “বরাক উপত্যকা ও লোয়ার অসমে গোমাংসের ফলেই ধর্মীয় সংঘাত ছড়িয়েছিল। তাই আমার মনে হয় ধর্মীয় শান্তি বজায় রাখার জন্য মন্দিরের কাছে গোমাংস বিক্রি বন্ধ এক উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ”।

নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন এবং বৈধ অনুমতি ছাড়া গবাদি পশু পরিবহণ করলে এই আইনের অধীনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন