স্ত্রীকে গলা কেটে খুন স্বামীর, চাঞ্চল্য এলাকায়

মালদা, ১২ জানুয়ারি: স্ত্রীকে গলা কেটে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে মানিকচক থানার উগরিটোলা গ্রামে। মৃত ওই মহিলার নাম চন্দনা রায়(৪০)। ওই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

পারিবারিক বিবাদের জেরে স্ত্রীকে গলা কেটে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে।ঘটনার পর থেকেই এলাকায় ছেড়ে বেপাত্তা অভিযুক্ত স্বামী। সোমবার রাতে এ ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় মানিকচক থানার উগরিটোলা গ্রামে। স্থানীয় বাসিন্দারা দেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে আনলে মৃত বলে ঘোষণা করে চিকিৎসকরা। মানিকচক থানার পুলিশ দেহ নিজেদের হেফাজতে নিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, অভিযুক্ত স্বামীর নাম ঝন্টু রায়। বিভিন্ন কারণ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে গন্ডগোল প্রায়ই লেগে থাকত। সোমবার রাতেও বাড়িতে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে তর্ক বিতর্ক শুরু হয়। অভিযোগ তখনই ধারাল অস্ত্র দিয়ে স্ট্রাইক আঘাত করে স্বামী ঝন্টু রায়। ওই সময় রক্তাক্ত অবস্থায় স্ত্রীকে ফেলে বাড়ি থেকে পালায় অভিযুক্ত স্বামী। আওয়াজ পেয়ে বাড়িতে থাকা মেয়ে জয়শ্রী রায় ছুটে গেলে বাবা চম্পট দেয়। তড়িঘড়ি স্থানীয় বাসিন্দাদের সহযোগিতায় মহিলাকে উদ্ধার করে মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় মানিকচক থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, মঙ্গলবার দেহ ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামীর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মেয়ে জয়শ্রী রায় জানান, বাবা-মায়ের প্রতি প্রতিনিয়ত ঝগরা চলত। কিন্তু বাবা যে এমন কাণ্ড করবে তা বুঝতেও পারেননি তারা। বাবা কোনো কাজকর্ম করত না।