বেহাল রাস্তা সংস্কারের দাবিতে রাজ‍্য সড়ক অবরোধ করে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরে

ইউবিজি নিউজ, মালদা;১৪ ডিসেম্বর:বেহাল ও চলাচলের অযোগ্য রাস্তা সংস্কারের দাবিতে রাজ্য সড়কের উপর বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড করে ও টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাল এলাকার বাসিন্দারা।সোমবার সাতসকাল থেকেই এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের গোলারমোড় এলাকায়।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ প্রায় ৩০-৩৫ টি গ্রামের বাসিন্দাদের হরিশ্চন্দ্রপুর যাওয়ার রাস্তা গোলারমোড় থেকে গোপাল কেডিয়া মোড় পর্যন্ত প্রায় চার কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে বেহাল হয়ে পড়ে থাকলেও ব্লক প্রশাসন কিংবা স্থানীয় পঞ্চায়েত রাস্তা মেরামত বা সংস্কারের কোনও উদ্যোগ নেয়নি।তাই বাধ্য হয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই রাজ্য সড়কের উপর বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড করে ও টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ আন্দোলনে নেমেছেন এলাকার বাসিন্দারা। তাদের দাবি, যতক্ষণ না রাস্তা সংস্কারের জন্য প্রশাসনিক উদ্যোগ নেওয়া হবে ততক্ষণ এই অবরোধ কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়া হবে।

তাঁরা আরো জানান, গোলারমোড় থেকে হরিশ্চন্দ্রপুর গোপাল কেডিয়া মোড় পর্যন্ত প্রায় চার কিলোমিটার রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে। হরিশ্চন্দ্রপুরে যাওয়া থেকে শুরু করে হাসপাতাল, কলেজ, ব্লক, থানা,এডিএ অফিস সহ কোথাও যাতায়াত করা যাচ্ছে না।রাস্তা খারাপ থাকায় টোটো বা অটো কোনো যানবাহনই চলাচল করতে পারেনা এই রাস্তা দিয়ে। ফলে একপ্রকার গ্রামেই আটকে থাকতে হয় এলাকার বাসিন্দাদের। এমতাবস্থায় এলাকার বাসিন্দারা বহুবার স্থানীয় পঞ্চায়েত থেকে ব্লক প্রশাসন সকলের কাছে রাস্তা সংস্কারের জন্য দরবার করলেও আশ্বাস ছাড়া আর কোনো কাজই হয়নি। মানুষের সমস্যা থেকেই গিয়েছে।

বেহাল রাস্তার কারণে থমকে রয়েছে এলাকার ব্যাবসা বানিজ্য, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য পরিষেবা। ফলে ক্ষুদ্ধ বাসিন্দারা এই বেহাল রাস্তা সংস্কারের দাবিতে সোমবার সকাল থেকে গোলারমোড় এলাকায় ভালুকাগামি রাজ্য সড়কের উপর টায়ার জ্বালিয়ে বাঁশের ব্যারিকেড করে পথ অবরোধ আন্দোলনে সামিল হয়েছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা আনুয়ারুল হক বলেন, প্রায় চার মাস আগে স্থানীয় ঠিকাদাররা পাথর বিছিয়ে চলে গেলেও এখনো পর্যন্ত বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে রাস্তা। বড় বড় পাথর ও ইটের টুকরো রাস্তার উপর পড়ে থাকার কারনে বহু দুর্ঘটনাও ঘটেছে। অনেকবার প্রশাসন থেকে রাস্তা মেরামতের আশ্বাস দেওয়া হলেও কাজ হয়নি। রাস্তা সংস্কার না হলে ভোট বয়কট করবেন বলে জানান।

হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রিসবা খাতুনের স্বামী আফজল হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি বেহাল হয়ে পড়ে থাকার কারণে জেলা পরিষদ থেকে রাস্তাটি সংস্কারের জন্য টেন্ডার হয়।চাঁচল-১ নং ব্লকের কংগ্রেস দলের ঠিকাদার আনজারুল হোক রাস্তাটি সংস্কারের জন্য টেন্ডার নিলেও এখনো পর্যন্ত সংস্কার করে উঠতে পারেনি। সামনে বিধানসভা নির্বাচনে যাতে শাসকদের ভাবমূর্তি নষ্ট হয় তার জন্যই রাস্তার কাজটি আটকে রেখেছে।

অপরদিকে ঠিকাদার আনজারুল হক জানান জেলা পরিষদ থেকে ৭৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দে সে টেন্ডার নিলেও হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের তৃনমূল কংগ্রেসের দুই নেতা মকরম আলি ও বিমান ঝা তার কাছ থেকে পেটি কন্টাক্টর হিসেবে কাজ নিয়েছে।তারা কেন রাস্তার কাজটি করছে না তার তা জানা নেই।

সকাল থেকে গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তা পথ অবরোধে আটকে থাকলেও উদাসীন প্রশাসন বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের।