Ad
কলকাতাকোচবিহার

দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে ভবানিপুর বিধানসভা কেন্দ্রে প্রচার করলেন কোচবিহারের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

২৪ সেপ্টেম্বরঃ দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে ভবানিপুর বিধানসভা কেন্দ্রে প্রচার করলেন কোচবিহারের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ।

আজ তিনি ভবানিপুর বিধানসভা কেন্দ্রের ৬২, ৭২ এবং ৭৩ নম্বর ব্লকে প্রচার করেন বলে জানা গিয়েছে। ভাবনিপুরের ওই এলাকা গুলো মূলত রিফিউজি এলাকা। সেখানে রবীন্দ্রনাথ বাবুর কিছু পরিচিত মানুষজনও রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। এদিন রবীন্দ্রনাথ বাবু মোবাইলে জানান, আগামী দুদিন কোলকাতায় থেকে ভবানিপুরে প্রচার করবেন।

Ad

দীর্ঘ সময় ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে কোচবিহারের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা রবীন্দ্রনাথ বাবু। এক সময় রবীন্দ্রনাথ বাবুর চোখ দিয়েই কোচবিহার সহ গোটা উত্তরবঙ্গ দেখতেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকে দীর্ঘ প্রায় ২৪ বছর কোচবিহারের জেলা সভাপতির দায়িত্ব সামলেছেন রবীন্দ্রনাথ বাবু।

দল ক্ষমতায় আসার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতরের মত গুরুত্বপূর্ণ দফতরের দায়িত্ব রবীন্দ্রনাথ বাবুর দিয়েছিলেন। কিন্তু একুশের নির্বাচনে কোচবিহারের নাটাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থীর কাছে পরাজিত হন রবীন্দ্রনাথ বাবু। রবীন্দ্রনাথ বাবুর পরাজয় নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে প্রতিক্রিয়া দিয়ে জানিয়েছিলেন, ইচ্ছে করে তাঁকে হারিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এরপর তৃতীয় বারের জন্য তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্য সরকার গঠনের পর রবীন্দ্রনাথ বাবুকে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়রাম্যান করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোচবিহারে অনেক তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী মনে করেন, জেলা নেতৃত্বের মধ্যে দীর্ঘ সময় ধরে দলনেত্রীর একান্ত অনুগামী হয়ে রয়েছেন রবীন্দ্রনাথ বাবু। আর তাই উপনির্বাচনে ভবানিপুর কেন্দ্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী হতেই তাঁর হয়ে প্রচার করার জন্যই কোচবিহার থেকে কোলকাতা ছুটে গিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন