অর্জুনের নিজের ঘরেই ধাক্কা! বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন ১২ জন দলত্যাগী কাউন্সিলর

ওয়েবডেস্ক: ইঙ্গিত ছিল আগেই। অবশেষে সত্যি হল। উৎসবের মরসুমের পরেই ভাটপাড়া পৌরসভা দখলে নেবার কথা জানিয়েছিলেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷

তৃণমূল ভবনে বুধবার পুরমন্ত্রী ববি হাকিমের উপস্থিতিতে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন ১২ জন দলত্যাগী কাউন্সিলর। ৩৩ আসনের ভাটপাড়া পৌরসভায় তৃণমূলের কাউন্সিলর সংখ্যা দাঁড়াল ১৭। আগে থেকেই তৃণমূলে ৫ জন কাউন্সিলর ছিলেন। ফলে পৌরসভায় ফের সংখ্যালঘু হয়ে পড়ল অর্জুন সিংয়ের ভাইপো সৌরভ সিং পরিচালিত বিজেপি বোর্ড।

গত মঙ্গলবার দুই সি.আই.সি মদন মোহন ঘোষ এবং মনোজ গুহ পদত্যাগ করেন। তখনই রাখঢাক না রেখে ভাটপাড়ার ১০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মনোজ গুহ জানান যে তাঁরা বিজেপিতে হাপিয়ে উঠেছেন। তাই পুরনো দলেই ফিরবেন।

বুধবার তৃণমূল ভবনে ১২ জন কাউন্সিলরের তৃণমূলে ফিরে আসার মধ্যে দিয়ে অর্জুনের নিজের গড় ভাটপাড়াতেও বিজেপিতে ভাঙন ধরাতে সক্ষম হল তৃণমূল নেতৃত্ব। গত ২৩ মে ব্যারাকপুর লোকসভায় বিজেপির জয়ের পরপরই রাতারাতি রঙ বদলে যায় শিল্পাঞ্চলের পৌরসভাগুলোর। গত কয়েকমাসে প্রায় সবকটি পৌরসভা পুনরুদ্ধার করেছে তৃণমূল। হালিশহর, কাঁচরাপাড়া, গারুলিয়া, নৈহাটির পর সম্ভবত ভাটপাড়াও পুনর্দখল করতে চলেছে তৃণমূল।

তৃণমূল নেতৃত্বের কথায়, খুব দ্রুতই এই পৌরসভায় বিজেপির পৌরপ্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে চলেছে দল। একই সঙ্গে কাউগাছি পঞ্চায়েতের সাত সদস্যও আজ তৃণমূলে ফিরে আসেন। ফলে কাউগাছি পঞ্চায়েতও দখলে আনল তৃণমূল। একদিনে নিজের এলাকায় জোড়া ধাক্কার পর দাপুটে নেতা অর্জুন এরপর কী করেন, সেদিকেই তাকিয়ে আছে রাজনৈতিক শিবির।