Ad
জলপাইগুড়ি

চিকিৎসা নিতে গিয়ে মহিলা নার্সিং কর্মীর গায়ে হাত, গ্রেফতার ২ যুবক

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ, জলপাইগুড়ি :- হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গিয়ে কর্তব্যরত মহিলা নার্সিং কর্মীর গায়ে হাত দেওয়ার অভিযোগ উঠলো দুই যুবকের বিরুদ্ধে। হাসপাতালে নিরাপত্তা কর্মীরা নার্সিং কর্মীকে বাচাতে গেলে তাদের উপরেও চরাও হয় এই দুই যুবক।প্রায় ৩০ মিনিট ধরে হাসপাতালে তান্ডব চালানোর পরে অবশেষে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় দুই যুবক।জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে তোলা হলে অভিযুক্ত প্রলয় দাস ও বিশ্বজিৎ দাসকে ১০দিনের জেল হেপাজতের নির্দেশ দিলো বিচারক।

রবিবার গভীর রাতে জলপাইগুড়ি মোহিতনগরে বাসিন্দা প্রলয় দাস ও বিশ্বজিৎ দাস জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিষ্ট হাসপাতালে যায় প্রলয়ের মুখ কেটে গিয়েছে সেকারনে।অভিযোগ প্রলয় ও বিশ্বজিৎ দুই জনই হাসপাতালের জরুরী বিভাগে চিকিৎসা পরিশেবা নিতে গিয়ে জরুরী বিভাগে কর্মরত নার্সিং কর্মীকে নোংরা গালাগালি দেওয়ার পাশাপাশি নার্সিং কর্মীকে মারধোর করে বলে অভিযোগ করেছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর।

Ad

গতকাল দুই যুবককে সুপার স্পেশালিষ্ট হাসপাতাল থেকে গ্রেফতারের পর আজ জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে পেশ করে কোতয়ালী থানার পুলিশ।বিচারক দুই যুবককে আগামী ১০দিনের জন্য জেল হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছে। জলপাইগুড়ি হাসপাতাল সুপার গয়ারাম নস্কর জানিয়েছেন আমাদের এক নার্সিং কর্মীর গায়ে হাত দিয়েছে দুই যুবক আমরা আজ জলপাইগুড়ি কোতয়ালী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।অন্যদিকে অভিযুক্তদের আইনজীবী সাগ্নীক শঙ্কর সিকদার জানিয়েছে আমার দুই মক্কেলের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ করেছে স্বাস্থ্য দপ্তর। বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন আমরা বিচারকের সামনে সঠিক তথ্য তুলে ধরবো এর পর আদালত ঠিক করবে।

আরও পড়ুন