Ad
জলপাইগুড়ি

প্রেমের প্রস্তাবে ‘না’, ফালাকাটায় স্কুলে যাওয়ার পথে ছাত্রীর মাথা কেটে খুন যুবকের

নাবালিকাকে দা-এর এক কোপে নৃশংসভাবে খুন করল পড়শি যুবক

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদন : ভয়ঙ্কর! নৃশংস! নির্মম! না, কোনও বিশেষণ-ই এই হাড়হিম করা ঘটনার জন্য যথেষ্ট নয়। এই ঘটনা শিরদাঁড়া দিয়ে বইয়ে দেয় ঠান্ডা স্রোত।

স্কুল যাওয়ার পথে নাবালিকাকে দা-এর এক কোপে নৃশংসভাবে খুন করল পড়শি যুবক। দা-এর এক কোপে ওই নাবালিকার গলা কেটে দেয় অভিযুক্ত। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটায় খলিসামারি এলাকায়।মৃতার নাম অঙ্কিতা শীল। দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল সে।

Ad

জানা গিয়েছে, আজ সকালে স্কুলে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হচ্ছিল সে। সেইসময়ই আচমকা তার সামনে এসে দাঁড়ায় পড়শি যুবক স্বপন বিশ্বাস। তারপরই কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই নাবালিকার মুখে গামছা বেঁধে চুল টেনে ধরে দা দিয়ে গলায় কোপ বসায়। এই ভয়ঙ্কর হত্যালীলার প্রত্যক্ষদর্শী ওই নাবালিকার খুড়তুতো বোন।

সে জানিয়েছে, দা দিয়ে গলা কেটে দেয় অভিযুক্ত। বার বার কোপাতে থাকে দিদিকে। কিন্তু কেন এই নৃশংশ খুন? তা নিয়েই ধোঁয়াশা। ধন্দে সবাই। প্রকৃত কারণ কেউ-ই বলতে পারছে না। যদিও কেউ কেউ আবার এই ঘটনায় প্রেমের যোগ থাকার সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত প্রতিবেশী যুবককে আটক করেছে ফালাকাটা থানার পুলিস৷ সেইসঙ্গে তার পরিবারের প্রত্যেক সদস্যকেই আটক করে ফালাকাটা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। শুরু হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদ। ঘটনাস্থলে রয়েছে ফালাকাটা থানার বিশাল পুলিসবাহিনী। খুনের ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে ৷ এলাকাবাসীর বক্তব্য, অভিযুক্ত মানসিক ভারসাম্যহীন। তার পরিবারও তাই। তাই তাদের অবিলম্বে গ্রাম থেকে উচ্ছেদ করতে হবে।

আরও পড়ুন