Ad
জলপাইগুড়ি

ফের জলপাইগুড়ি রাজগঞ্জে গনধর্ষন, গত তিন মাসে তিনটি ধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্য রাজগঞ্জে

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

জলপাইগুড়িঃঃ ফের জলপাইগুড়ি রাজগঞ্জে গনধর্ষন। গত তিন মাসে তিনটি ধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্য রাজগঞ্জে।এবার দুই নাবালিকাকে অপহরণ করে গন ধর্ষনের অভিযোগ ৫জন যুবকের বিরুদ্ধে।

 অভিযুক্ত ৫ জন যুবকের মধ্যে ৩জন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ।লজ্জায় বিষ খেয়ে আত্মঘাতী এক নাবালিকা।চিকিৎসারত আর এক নাবালিকার বয়ানের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার তিন অভিযুক্ত।পলাতক দুই অভিযুক্ত।

Ad

নাবালিকার পরিবার যানিয়েছেন রাজগঞ্জ ব্লকের সন্নাসীকাটা গ্রামপঞ্চায়েতের নবগ্রাম এলাকার আদিবাসী দুই বোন শুক্রবার সন্ধ্যায় দোকানে যায়।সেই সময় তাদের জোড় করে চা বাগানের দিকে টেনে নিয়ে চলে যায় পাচ যুবক।

 সেখানে দুই বোনের সাথে গনধর্ষনের চেষ্টা করে ৫ জন যুবক।বড় বোনকে বলপূর্বক ধর্ষন করতে সক্ষম হলেও ছোট বোনের শ্লীলতাহানি করে ধর্ষনের চেষ্টা করলে সে পালিয়ে যায়।

দিদিকে বাঁচাতে পারে না ছোট বোন।অভিযুক্তরা দিদিকে ধর্ষন করে পালিয়ে যায় । ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় ছোট বোন।এরপর থেকে নিঁখোজ থাকে দুই বোন। একদিন পর তারা বাড়ি ফিরে সব ঘটনা খুলে বলে পরিবারকে ।

 আত্মসম্মান বাঁচাতে বিষ খেয়ে নেয় ধর্ষিতা নাবালিকা সহ তার বোন।তাকে তড়িঘড়ি উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষনা করে।

এদিকে ছোট বোনকেও মেডিকেল কলেজে ভর্তি করানো হয় চিকিৎসার জন্য।সে হাসপাতালের বেডে শুয়েই গোটা ঘটনার জবানবন্দি দেয় পুলিশকে।

সেই জবানবন্দির সুত্র ধরেই এলাকার ৩ যুবককে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ গতকাল রাতেই গ্রেপ্তার করেছে।এদিকে অভিযুক্তদের পরিবার গোটা ঘটনার সাথে তাদের ছেলেদের কোন যোগ নেই বলে জানিয়েছে।তাদের ফাঁসানো হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।গত দুই মাসে রাজগঞ্জ ব্লকে মোট তিনটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটলো।

নাবালিকাকে ধর্ষনের ঘটনা খবর চাউর হতেই এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়।CI সদর দিপোজ্জ্বল ভৌমিকের নেতৃত্বে রাজ গঞ্জ থানার বিরাট পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌছায়। নিখোঁজ থাকার পর তারা কোথায় ছিল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

ধৃত তিন অভিযুক্তকে আজ জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে তোলা হয়। পলাতক দুই অভিযুক্তের খোজেঁ তল্লাশি শুরু করেছে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন