Ad
উত্তরবঙ্গজলপাইগুড়ি

দুই বন্ধুর মধ্যে বচসায় প্রান গেলো এক যুবকের

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

নিজস্ব সংবাদদাতা, জলপাইগুড়িঃ- দুই বন্ধুর মধ্যে বচসায় প্রান গেলো এক যুবকের। জলপাইগুড়ি ৮নং ওয়ার্ডের কিংসাহেব ঘাটের ঘটনা। মৃত যুবকের নাম বিশাল রাউত ( ২০)।এই ঘটনায় পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে বিজয় দাস নামে হত্যাকারী যুবকে। এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে জলপাইগুড়ি কোতয়ালী থানার পুলিশ।

স্থানীয় সুত্রে খবর মঙ্গলবার রাতে জলপাইগুড়ি ৮নং ওয়ার্ডের কিংসাহেব ঘাটে করলানদীতে মাছ ধরছিল এলাকার বেশ কিছু যুবকদের সাথে বিশাল রাউত। সেখানে গিয়ে তাদের আরেক বন্ধু বিজয় দাস বিশাল রাউতদের বিরক্ত করছিল। সবাই বিজয় দাসকে এই রকম করতে না বললেও সে আরো বেশি করে তাদের মাছ ধরতে বিরক্ত করছিল।

Ad

 

কিছু সময় বাদে বিজয় দাস বিশালের গলাটিপে ধরে বাকি বন্ধুরা কিছু বোঝার আগেই জ্ঞান হারায় বিশাল রাউত। বিশালের বন্ধুরা বিশালকে নিয়ে প্রথমে জলপাইগুড়ি বাবুপাড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায় সেখান থেকে চিকিৎসকরা তাকে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিষ্ট হাসপাতালে রেফার করে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা বিশালকে মৃত বলে ঘোষনা করে।

রাতেই ঘটনাস্থলে কোতয়ালী থানার আইসি বিপুল সিনহার নেত্বিতে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে বিশালকে হত্যা করার অপরাধে একই এলাকার যুবক বিজয় দাসকে গ্রেপ্তার করে।আজ ধৃত বিজয় দাসকে জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে পেশ করবে পুলিশ।

তবে দুই বন্ধুর মধ্যে এমনকি হলো যে এক বন্ধু অপর বন্ধুর প্রান কেরে নিলো সেটা জানার জন্য তদন্ত শুরু করেছে কোতয়ালী থানার পুলিশ। বিশালের পরিবার আজ কোতয়ালী থানায় হত্যাকারী বিজয় দাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে।মৃত বিশালের বাবা বিজয় রাউত তার ছেলের হত্যাকারীর কঠর শাস্তির দাবি করেছে পুলিশের কাছে৷

আরও পড়ুন