ভারতের হামলার ভয়ে অভিনন্দনকে ছেড়ে দেয় পাকিস্তান!চাঞ্চল্যকর দাবি পাকিস্তানের বিরোধী নেতার

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : ভারতের হামলার ভয়ে পা কাঁপছিল পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার। প্রচণ্ড ঘামছিলেন তিনি। পাক বিদেশমন্ত্রীর অবস্থাও ছিল তথৈবচ। ভয়ে অভিনন্দন বর্তমানকে (Abhinandan Varthaman) মুক্তি দেয় পাকিস্তান। বুধবার, পাক সংসদে দাঁড়িয়ে এমনটাই জানিয়েছেন খোদ পাকিস্তান মুসলিম লিগের (নওয়াজ) নেতা সর্দার আয়াজ সাদিক।

গত বছর মার্চে পাকিস্তানের হাতে বন্দি হওয়া ভারতের উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে (Abhinandan Varthaman) ছেড়ে দেওয়ার প্রসঙ্গে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan) বলেছিলেন ‘শান্তি আর সৌজন্যের’ প্রতিক হিসেবেই ছাড়া হচ্ছে তাঁকে। কিন্তু পাকিস্তানের বিরোধী দলের এক সাংসদের দাবি ভারতের হামলার ভয়েই অভিনন্দনকে ছেড়ে দেয় পাকিস্তান। এমন কি ভারত হামলা করতে পারে, এটা আন্দাজ করে সেনাপ্রধান ‘ভয়ে কাঁপছিলেন।’

জাতীয় সংসদে এক ভাষণে পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (PML-N) নেতা আয়াজ সাদিক বলেন, অভিনন্দন বন্দি হওয়ার পর পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বলেছিলেন, “অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি না দিলে, ভারত পাকিস্তানের উপর হামলা করবে।” এ-ও বলা হয়েছিল, ওই দিন রাত ৯টার মধ্যে ভারত প্রত্যাঘাত করবে। এমন একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে দুনিয়া নিউজে।

বিরোধী নেতাদের উদ্দেশে সাদিক বলেন, পিপিপি ও পিএমএল-এনের নেতারা ছাড়াও সেনা প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার উপস্থিতিতে বৈঠক করেন পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি। ওই বৈঠকে ছিলেন না ইমরান। পাক বিদেশমন্ত্রী বৈঠকে বলেন অভিনন্দকে মুক্তি দিতে হবে।

পিএমএল-এন নেতার কথায়, “আমার এখনও স্পষ্ট মনে আছে কুরেশির ওই বৈঠকে ইমরান খান থাকতে অস্বীকার করেন। বৈঠকে এসেছিলেন পাক সেনা প্রধান। তিনি তখন দরদর করে ঘামছেন, থরথর করে কাঁপছেন। বিদেশমন্ত্রী বৈঠকে উপস্থিত সকলের উদ্দেশে বলেন, ‘আল্লার দোহাই, অভিনন্দকে যেতে দিন। না হলে রাত ৯টার মধ্যে ভারত পাকিস্তানের উপর হামলা চালাবে’।”

উল্লেখ্য, ২০১৯-এর ফেব্রুয়ারিতে পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলাকে কেন্দ্র করে আচমকা ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরি হয়। জঙ্গিঘাঁটি ধ্বংস করতে ভোররাতের অন্ধকারে পাকিস্তানের বালাকোটে, জঈশ-এ-মহম্মদের শিবিরে এয়ারস্ট্রাইক চালিয়েছিল বায়ুসেনা।