মাইন উদ্ধারে সিদ্ধহস্ত, বহু মানুষের প্রাণ বাঁচিয়ে সোনার পদক পেল ইঁদুর

ওয়েব ডেস্ক, ২৭ সেপ্টেম্বরঃ বহু গৃহস্থের বাড়িতে এখনও সব থেকে বড় মাথা ব্যাথার কারন ইঁদুর! বিশেষ করে গ্রাম গঞ্জেতো আরও বেশি। ধানের বস্তা বা খাদ্যশস্য কেটে নষ্ট করে দেয় আয়তনে ছোট্ট একটি ইঁদুর। কিন্তু এবার অন্য এক ঘটনা সামনে আসলো। গৃহস্থের সব থেকে বড় সেই মাথা ব্যাথা ইঁদুরই পেল সাহসিকতার সোনার পদক! শুনতে অবাক লাগলেও এমনই ঘটনা ঘটেছে কম্বোডিয়ায়।

ওই ইঁদুরটি আসলে মাটিতে পুঁতে রাখা ল্যান্ডমাইন উদ্ধারে সিদ্ধহস্ত। এই ইঁদুর এখনও পর্যন্ত ৩৯টি ল্যান্ডমাইন এবং ২৮টি বিস্ফোরক উদ্ধার করে দিয়েছে। পাশাপাশি ১ লক্ষ ৪১ হাজার স্কয়্যার কিলোমিটার এলাকা পরীক্ষা করে বিস্ফোরক উদ্ধারে সাহায্য করেছে সেই ইঁদুর।

জানা গিয়েছে, মাটির অনেকটা নিচে পুঁতে রাখা ল্যান্ডমাইন খুঁজে বের করতে আফ্রিকান ইঁদুরকে ব্যবহার করে কয়েকটি দেশের সেনা। আর এই কাজে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করেছে আফ্রিকান ইঁদুর মাগওয়া। জানা গিয়েছে, কম্বোডিয়ার একটি সংস্থা আফ্রিকান ইঁদুরদের বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দিয়ে ল্যান্ডমাইন খোঁজার কাজে ব্যবহার করার উপযুক্ত করে তোলে।

সেই মত আফ্রিকান ইঁদুর মাগওয়াকেও বিশেষ ভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছিল। প্রশিক্ষণ সেশে দীর্ঘদিন ধরে ল্যান্ডমাইন উদ্ধারে সিদ্ধহস্ত হয়ে উঠেছিল মাগওয়া। সে এখনও পর্যন্ত ৩৯টি ল্যান্ডমাইন এবং ২৮টি বিস্ফোরক উদ্ধার করে দিয়েছে। আর তাই কম্বোডিয়ার একটি সংস্থা মাগওয়াককে তাঁর কাজের জন্য সোনার পদক দিয়ে সম্মান জানায়।

এই সংস্থার ৭০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো প্রাণী সাহসিকতার জন্য পুরস্কারে সম্মানিত হল। যদিও কম্বোডিয়ায় ইঁদুর ছাড়া অন্য ছোট আকারের প্রাণীদের দিয়েও ল্যানডমাইন থোঁজার কাজ চলে। তবে মাগওয়ার মতো এত পরিমাণ বিস্ফোরক আর কোনও প্রাণী এখনো খুঁজে দেয়নি।