Ad
দেশ

বিশেষ সভা ও কর্মসূচি নিয়ে আগামীকাল বাংলায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : বুধবার রাতেই কলকাতায় চলে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রাতে থাকবেন রাজারহাটের হোটেলে। শুক্রবার সকালে চপারে উড়ে তাঁর বাঁকুড়ায় যাওয়ার কথা।

প্রথমে ঠিক ছিল ৫ নভেম্বর অন্ডাল বিমানবন্দরে নামবেন শাহ। তারপর সেখান থেকে যাবেন বাঁকুড়া। কিন্তু সোমবার রাজ্য বিজেপির তরফে বলা হয়েছে শাহের সফরসূচিতে কিছু পরিবর্তন হয়েছে। বুধবার রাতে কলকাতায় পৌঁছে রাজারহাটের হোটেলে দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অরবিন্দ মেননদের সঙ্গে একপ্রস্থ বৈঠক করতে পারেন প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি।

Ad

বৃহস্পতিবার বাঁকুড়া রবীন্দ্র ভবনে দক্ষিণবঙ্গ ও পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলির শীর্ষ নেতাদের নিয়ে বৈঠক করবেন অমিত শাহ। সেখানে উপস্থিত থাকার কথা, দুই মেদিনীপুর, হুগলি, দুই বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রামের নেতাদের। পুজোর আগে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির নেতাদের সঙ্গে একই ধরনের বৈঠক করে গিয়েছিলেন বিজেপি সভাপতি জগত্‍প্রকাশ নাড্ডা।

বৃহস্পতিবার রাতে বাঁকুড়া থেকে রাজারহাটের হোটেলে ফিরবেন শাহ। শুক্রবার সকালে যাবেন দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে পুজো দিতে। সেখান থেকে যাবেন সল্টলেকের ইজেডসিসিতে। দুই ২৪ পরগনা, কলকাতা ও হাওড়ার জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করবেন অমিত শাহ।

বিজেপি সূত্রে খবর, দুপুরে কোনও একটি উদ্বাস্তু পরিবারে মধ্যাহ্নভোজ সারতে পারেন অমিত শাহ। তারপর বিকেলে যেতে পারেন শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের পুরোধা পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর বাড়িতে। প্রসঙ্গত, সোমবার অজয়বাবুর বাড়িতে দেখা করতে গিয়েছিলেন মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অর্জুন সিংরা। হতে পারে এ ব্যাপারেই অজয়বাবুর সম্মতি আনতে গিয়েছিলেন তাঁরা।

কিন্তু পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর সঙ্গে কেন দেখা করবেন অমিত শাহ?

বঙ্গ বিজেপির নেতৃত্ব বলছে, সৌজন্য সাক্ষাত্‍ করতে যাবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। উত্তরবঙ্গের সভায় এসে জেলা নেতাদের উদ্দেশে নাড্ডা বলে গিয়েছিলেন, এখন থেকেই সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রের কৃতীদের সঙ্গে যোগযোগ বাড়াতে হবে। শিল্পী, সাহিত্যিক, বুদ্ধিজীবী মহলে ভিত তৈরির পরামর্শ দিয়েছিলেন। হতে পারে অমিত শাহ নিজে অজয়বাবুর বাড়িতে গিয়ে জেলা নেতৃত্বের উদ্দেশে বার্তা দেবেন।

আরও পড়ুন