Ad
দেশবিনোদন

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

UBG NEWS, ডেস্ক :সুশান্ত মৃত্যু মামলার তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশ এবং সিবিআই! কিন্তু, একে অপরে বিরুদ্ধে ঠিকমতো তদন্ত না করার অভিযোগ তুলেছে দু’পক্ষই। এই প্রেক্ষিতে এদিন শীর্ষ আদালতের রায় গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এর ফলে তদন্তের দায়িত্ব কার, সেই সংক্রান্ত জটিলতার অবসান হল বলে মনে করছে সবপক্ষ।সুশান্তের মৃত্যু মামলার তদন্ত শুরু থেকে করছিল মুম্বই পুলিশ। কিন্তু, সুশান্তের বাবা পাটনার এক থানায় রিয়া চক্রবর্তী, তাঁর বাবা ইন্দ্রজিৎ‍ চক্রবর্তী, মা সন্ধ্যা চক্রবর্তী, ভাই সৌভিক চক্রবর্তী, সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা এবং রিয়ার ম্যানেজার তথা সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার শ্রুতি মোদির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে।রিয়াও সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করে মামলার তদন্ত পাটনা থেকে মুম্বইয়ে স্থানান্তরের আবেদন জানান। এরইমধ্যে বিজেপির তরফে সুশান্তের মৃত্যু মামলার সিবিআই তদন্তের দাবি জোরালো ভাবে তোলা হয়।

এর প্রেক্ষিতে বিহারে বিজেপি-জেডিইউ সরকার একদা পাটনার বাসিন্দা সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তভার সিবিআইকে দেওয়ার সুপারিশ করে। সঙ্গে সঙ্গে মোদি সরকার বিহার সরকারের দাবি মেনে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয়।এরপরই সিবিআই তদন্ত শুরু করে দেয়। কিন্তু, মহারাষ্ট্র সরকারের দাবি, যাঁর মৃত্যু হয়েছে এবং যাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে, তাঁরা সকলে মুম্বইয়ের বাসিন্দা। তাই সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করার কোনও এক্তিয়ার বিহার সরকারের নেই।

পাল্টা বিহার সরকার দাবি করে, সুশান্তের বাবা পাটনায় এফআইআর করেছেন, তাই তাদের সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করার এক্তিয়ার আছে। সিবিআই আদালতে জানায়, তারা তদন্তের জন্য প্রস্তুত। পাল্টা মুম্বই পুলিশ দাবি করে, তারা তদন্তে সক্ষম। তাই তাদেরই তদন্ত চালিয়ে যেতে দেওয়া হোক।এরইমধ্যে সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে রাজনৈতিক তরজাও চরমে ওঠে। শুধু বিহার পুলিশ আর মুম্বই পুলিশই নয়, বিজেপি এবং শিবসেনাও দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে। শিবসেনা দাবি করে, বিহার বিধানসভা ভোটের আগে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে সুশান্তের মৃত্যু মামলার তদন্ত সিবিআইকে দিয়ে করাতে চাইছে বিজেপি।

পাল্টা বিজেপি অভিযোগ করে, মুম্বই পুলিশ প্রভাবশালীদের আড়াল করতে চাইছে। তাই তারা তদন্ত করলে প্রকৃত সত্যিটা কোনওদিন সামনে আসবে না।এরইমধ্যে মঙ্গলবার রিয়ার আইনজীবী এক বিবৃতি জারি করেছেন। তাতে তাৎ‍পর্যপূর্ণভাবে বলা হয়েছে, রিয়া সবসময় চেয়েছেন নিরপেক্ষ তদন্তের মধ্যে দিয়ে প্রকৃত সত্যিটা বেরি আসুক। তিনি আবেদনে এটাও বলেছেন, যে তিনি সিবিআই তদন্ত চেয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে মেসেজ করেছিলেন।

রিয়া সুপ্রিম কোর্টে এও বলেছেন, যদি সুপ্রিম কোর্ট সিবিআইকে মামলার তদন্তভার দিতে চায়, তাহলে তাঁর কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু, এক্তিয়ার বর্হিভূতভাবে বিহার পুলিশ যেভাবে তদন্ত করেছে এবং বেআইনি তদন্তের ভার যেভাবে সিবিআইকে দেওয়া হয়েছে, তার বিরোধিতা করেছেন রিয়া। মহারাষ্ট্র সরকারের সম্মতি ছাড়া কোনওভাবেই তদন্তভার সিবিআইকে দেওয়া যায় না।…যেভাবে বিহারে গোটা ঘটনা প্রক্রিয়া এগিয়েছে, তা থেকে এটা আশা করা অসম্ভব, যে তাঁর সঙ্গে সঠিক আচরণ করা হবে।রিয়ার আশঙ্কা বিহার পুলিশের পদক্ষেপে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো ধাক্কা খেতে পারে। এই পরিস্থিতিতে মামলা হস্তান্তর নিয়ে বুধবার রায় ঘোষণা করল সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুন