সামনে ভোট তার আগে কমল মদের দাম

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : ভোটের আগে অসম সরকার ২৫ শতাংশ শুল্ক কমিয়ে দিল মদের উপর । পাশাপাশি যখন দেশজুড়ে পেট্রোল-ডিজেলের দাম অগ্নিমূল্য তখন এই রাজ্যে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম প্রতি লিটারে পাঁচ টাকা কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। শুক্রবার অসমের অর্থমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা বিধানসভায় এ কথা ঘোষণা করেছেন। আজ মধ্যরাত থেকে ঘোষণা অনুসারে এই সব পণ্যের নতুন দাম কার্যকর হবে।

করোনা সংকটের কারণে অসম সরকার গতবছরে পেট্রোল ও ডিজেলের উপরে যে অতিরিক্ত পাঁচ টাকার শুল্ক নেওয়া শুরু করেছিল  তা প্রত্যাহার করা হল বলে শুক্রবার রাজ্যের অর্থ মন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা বিধানসভায় জানান। পাশাপাশি আশা প্রকাশ করেন , জ্বালানি তেলের এভাবে দাম কমানোয় সকলেই স্বস্তি পাবে।

এর পাশাপাশি , শুক্রবার মধ্যরাত থেকে অ্যালকোহলে ২৫ শতাংশ অতিরিক্ত সেসও তুলে নেওয়া হবে, যা বসানো হয়েছিল মহামারীর সময় স্বাস্থ্য পরিসেবায় ব্যয় করার জন্য। বর্তমানে অসমে প্রতি লিটারের‌ পেট্রোলের এবং ডিজেলের দাম যথাক্রমে ৯০ টাকা ৪১ পয়সা এবং ৮৪ টাকা ২৯ পয়সা।

অর্থমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মার বক্তব্য, করোনা মহামারী চরমে ওঠায় সেই সময় পেট্রোল, ডিজেলের উপরে কর বাড়ানো হয়েছিল। কিন্তু এখন করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় এবং স্বাস্থ্য খাতে অতিরিক্ত বোঝা হ্রাস পাওয়ায় রাজ্য মন্ত্রিসভা জ্বালানি তেলের উপরে অতিরিক্ত শুল্ক প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর পাশাপাশি তিনি দাবি করেছেন, এর ফলে পেট্রোলের দাম দেশের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন হবে, সর্বনিম্ন দাম হল গুজরাটে। অন্যদিকে ডিজেলের দাম অন্যতম সর্বনিম্ন হবে,দাম হবে হরিয়ানা হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তর প্রদেশের ঠিক পরেই। এমন সিদ্ধান্তের ফলে প্রতিমাসে রাজ্যের ৮০ কোটি টাকা ক্ষতি হবে।

অসমে চলতি বছরের মার্চ অথবা এপ্রিল মাসে বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবার কথা। এই পরিস্থিতিতে জ্বালানি তেল এবং মদের দাম কমানোর পিছনে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য আছে বলে মনে করছে বিভিন্ন মহল। ক্ষমতা ধরে রাখতে সর্বানন্দ সনোয়ালের নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।