গ্রাহকদের সুরক্ষায় এই ব্যাংকের লাইসেন্স বাতিল করল ‘আরবিআই’

ইউবিজি নিউজ ব্যুরো : গ্রাহকদের স্বার্থ সুরক্ষায় বড় পদক্ষেপ গ্রহন করল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক। মঙ্গলবার মহারাষ্ট্রের একটি ব্যাংকের লাইসেন্স বাতিল করেছে আরবিআই। অপর্যাপ্ত মূলধন এবং আয়ের সম্ভাবনা না থাকায় এই পদক্ষেপ নিয়েছে আরবিআই।আমানতকারীদের স্বার্থ রক্ষায় মহারাষ্ট্রের কারাদ জনতা সহকারী ব্যাংক লিমিটেড-এর উপরে নেমে এসেছে শাস্তির খাঁড়া।

গতকাল এই ব্যাংকের লাইসেন্স বাতিল করে দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক। ৭ ডিসেম্বর নির্ধারিত ব্যবসার সময়ের পরে এই ব্যাংক আর কোনও ভাবে তাদের ‘ব্যাংকিং’ কাজকর্ম চালিয়ে যেতে পারবে না। এর মধ্যে আছে গ্রাহকদের থেকে আমানত জমা নেওয়া এবং আমানতকারীদের টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার মতো কাজ।

এই সমবায় ব্যাংকের লাইসেন্স বাতিলের কারণ হিসেবে রিজার্ভ ব্যাংক জানিয়েছে, বর্তমানে ব্যাংকটির যা আর্থিক স্বাস্থ্য তাতে আমানতকারীদের সম্পূর্ণ অর্থ ফিরিয়ে দিতে পারত না। এই পরিস্থিতিতে তাদের ব্যাংকিং কাজকর্ম চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হলে গ্রাহক স্বার্থ দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা ছিল।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ১৯৪৯ সালের ব্যাংকিং রেগুলেশন আইন অনুসারে লাইসেন্স বাতিলের মতো কড়া পদক্ষেপ করেছে রিজার্ভ ব্যাংক।লাইসেন্স বাতিল হলেও কারাদ জনতা সহকারী ব্যাংকের গ্রাহকদের আমানতের নিরাপত্তা ও ভবিষ্যৎ নিয়ে আশ্বস্ত করেছে আরবিআই।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইনসিওরেন্স অ্যান্ড ক্রেডিট গ্যারেন্টি কর্পোরেশন-এর থেকে ওই ব্যাংকের ৯৯ শতাংশের বেশি গ্রাহক তাঁদের আমানতের সম্পূর্ণ টাকা ফেরত পাবেন। ভবিষ্যতে ধীরে ধীরে গ্রাহকদের টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে।

এক্ষেত্রে আইন অনুসারে, বন্ধ হয়ে যাওয়া ওই ব্যাংকের প্রত্যেক গ্রাহককে DICGC সর্বোচ্চ ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আমানতের অর্থ ফরিয়ে দেবে। ফলে কারাদ জনতা সহকারী ব্যাংকের ৯৯ শতাংশের বেশি আমানতকারী নিজেদের সম্পূর্ণ টাকা ফেরত পেয়ে যাবেন। তবে এ জন্য তাঁদের কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।