Ad
দিল্লিদেশ

মোদীর মন্ত্রিসভায় নিশীথ, দেবশ্রীকে ইস্তফা দেওয়ার নির্দেশ

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

নয়াদিল্লি, ৭ জুলাইঃ আজই হতে চলেছে দ্বিতীয় মোদী সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণ। বাংলা থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হচ্ছেন বনগাঁর সাংসদ শান্তনু ঠাকুর এবং কোচবিহারের সাংসদ নীশিথ প্রামাণিক। ইতিমধ্যে রায়গঞ্জের সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরীকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিতে বলা হয়েছে।

এছাড়া ইস্তফা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গাঙ্গওয়ার। রাষ্ট্রপতি ভবন সূত্রে খবর, আজ সন্ধে ৬টায় শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হবে নতুন মন্ত্রীদের।

Ad

প্রথা মেনে বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেন সম্ভাব্য নয়া মন্ত্রীরা। প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও বৈঠকে রয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। রাজনৈতিক মহলে জোর গুঞ্জন, প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে যাঁদের দেখা যাচ্ছে, মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণে সম্ভবত তাঁদেরই ভাগ্যের শিকে ছিঁড়তে চলেছে। তবে এই বৈঠকে অর্থমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরের উপস্থিতি নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়। সূত্রের খবর, সম্ভবত মন্ত্রিসভায় পদমর্যাদা বাড়তে চলেছে হিমাচলপ্রদেশের হামিরপুরের সাংসদের।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার রদবদলের আগে, মঙ্গলবার দেশের আট রাজ্যের রাজ্যপাল বদল করা হয়েছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ৭৩ বছরের থাওয়ারচাঁদ গেহলটকে কর্ণাটকের রাজ্যপাল হিসাবে নিয়োগ করা হয়েছে। ফলে আরও একটি পদ ফাঁকা হয়েছে। সমবায়মন্ত্রীর নতুন একটি পদও মোদী তৈরি করেছেন। বর্তমানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় মোট ৮১ জন মন্ত্রী হতে পারেন। বর্তমানে ৫২ জন মন্ত্রী রয়েছেন। ২৯টি পদ ফাঁকা রয়েছে।

এবার পূর্ণমন্ত্রীর পদ পেতে পারেন ছয় জন। নতুন মন্ত্রিসভায় কে ঠাঁই পাবেন? সেই বিষয়ে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই জল্পনা চলছিল। যার উত্তর মিলবে আজ সন্ধেয় রাষ্ট্রপতি ভবনে। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য ইতিমধ্যে আমন্ত্রণ পৌঁছে গিয়েছে বিরোধী দলগুলোর কাছেও।

আরও পড়ুন