দেশ

কোচবিহারে করোনার বুস্টার ডোজ নিলেন জেলা শাসক পবন কাদিয়ান সহ প্রথম সারির যোদ্ধারা

কোচবিহার, ১০ জানুয়ারিঃ করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে  বিপর্যস্ত জনজীবন, প্রতিদিন ১ লক্ষের ওপর করোনা সংক্রমণ ঘটছে। এই অবস্থায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক করোনার বুস্টার ডোজের কথা ঘোষণা করেছিলেন। আর সেই ঘোষণা মতে আজ থেকে গোটা দেশে শুরু হয়েগিয়েছে করোনার বুস্টার ডোজ প্রদান প্রক্রিয়া।

এই বুস্টার ডোজ প্রক্রিয়াতে পিছিয়ে নেই কোচবিহারও। এদিন কোচবিহার পুলিশ লাইনে অবস্থিত পুলিশ হাসপাতালে করোনার এই বুস্টার ডোজ প্রক্রিয়া শুরু হয়। এদিন প্রথম সারির কর্মী হিসেবে কোচবিহারের জেলা শাসক পবন কাদিয়ান, পুলিশ সুপার সুমিত কুমার, অতিরিক্ত জেলা শাসক সকলেই আজ করোনার বুস্টার ডোজ গ্রহণ করেন।

মুলত, প্রথম সারির কর্মী, সকল স্বাস্থ্য কর্মী, করোনা যোদ্ধা এবং কোমর্বিডিটি রয়েছে এবং ৬০ ঊর্ধ্ব ব্যাক্তি। এই বুস্টার ডোজ করোনা টীকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার ৯ মাস পর নেওয়া যাবে। যাদের করোনা হয়েছিল তাদের করোনা মুক্তির ৩ মাস পর এই বুস্টার ডোজ নেওয়া যাবে। এই রাজ্যে সাড়ে ৭ লক্ষ স্বাস্থ্য কর্মী, সাড়ে ১০ লক্ষ ফ্রন্ট লাইন ওয়ার্কারস, ২২ লক্ষ কোমর্বিডিটি থাকা ৬০ ঊর্ধ্ব ব্যাক্তি বুস্টার ডোজ পাবেন। যিনি আগে কোভিশিল্ড নিয়েছিলেন তিনি কোভিশিল্ডই নিতে পারবেন। মুলত একদিকে সতর্ক থাকতে হবে যাতে ‘মিক্সিং অফ ভ্যাকসিন ব্র্যান্ড’ করা যাবে না। যারা আগে কোউইন অ্যাপে রেজিস্ট্রেশান করেছেন তাদের আর নতুন করে করতে হবে না।

কোচবিহারের জেলা শাসক পবন কাদিয়ান বলেন, গোটা রাজ্যের সাথে সাথে কোচবিহার জেলাতেও বুস্টার ডোজ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তিনি সকলকে করোনার এই বুস্টার ডোজ যত তারাতারি সম্ভভ নিয়ে নেওয়ার জন্য আহ্বান জানান।

Ad

ওপর দিকে কোচবিহার জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, জেলায় যারা যারা করোনার এই বুস্টার ডোজ নেওয়ার জন্য সক্ষম রয়েছেন তারা যেন খুব তারাতারি এই ডোজ নিয়ে নেন। এই বুস্টার ডোজ নিতে কোন অসুবিধা হলে প্রশাসন তার সব রকম সাহায্য করবে।

[ লেটেস্ট খবর এবং আপডেট জানার জন্য ফলো করুন ইউবিজি নিউজ ফেসবুক পেজ । ব্রেকিং নিউজ এবং ডেইলি খবরের আপডেটে পেতে যুক্ত হোন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে  ]