মা হচ্ছেন তৃণমূল সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহান

ইউবিজি news: প্রচলিত স্রোতের বিপরীতেই হাঁটতে ভালোবাসেন তিনি। জীবনকে বাঁচেন নিজের শর্তে। নুসরত জাহান বরাবরই স্বাধীনচেতা, আর এবার জীবনের বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন অভিনেত্রী। মা হবেন নুসরত জাহান। গত কয়েক মাস ধরেই তারকা সাংসদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে টানাপোড়েনের শেষ নেই। নিখিল জৈনের সঙ্গে দাম্পত্য সম্পর্কে চিড়, যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা উঠে এসেছে সংবাদ শিরোনামে। এবার আরও একধাপ এগিয়ে গেল এই ত্রিকোণ প্রেমকাহিনিতে নিয়ে গজিয়ে উঠা চর্চা।

টলিপাড়া সূত্রে খবর এবার মা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন অভিনেত্রী। গতকাল (শুক্রবার) ইন্ডাস্ট্রিতে দশ বছর পূর্ণ করেছেন নুসরত। সেই খুশি ভাগ করে নিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। নায়িকা থেকে সাংসদ হয়েছে দু-বছর আগে। রাজনৈতিক কেরিয়ার শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই পা রেখেছিলেন দাম্পত্য জীবনে। যদিও সুখের হয়নি সেই সংসার। নিখিল জৈনের সঙ্গে ২০১৯-এর জুন মাসেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন নুসরত।

বছর ঘুরতে না ঘুরতেই সুখের সংসার ভাঙন। গত ডিসেম্বর থেকেই আলাদা নুসরত-নিখিল। অন্যদিকে যশের সঙ্গে নুসরতের ঘনিষ্ঠতা বেড়েছে গত কয়েক মাসে। শুরুটা ডিসেম্বরে আজমীর ট্রিপ দিয়ে, এরপর কখনও কফি ডেটে তো কখনও ডিনার ডেটে একসঙ্গে দেখা গিয়েছে তাঁদের। সম্প্রতি নিজেদের সম্পর্কে ইনস্টাগ্রাম অফিসিয়্যালের স্টাম্পও দিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী। সূত্রের খবর এখন বেশিরভাগ সময়টাই একসঙ্গে কাটাচ্ছেন ‘যশরত’।

সোমবার এক ইংরাজি সংবাদপত্রের এক সমীক্ষায় টলিউডের সবচেয়ে ‘কাঙ্খিত’ নারীর তালিকায় তিন নম্বরে জায়গা করে নিয়েছেন নুসরত জাহান। আর সেই আর্টিকেলে স্পষ্টভাবে নুসরতের রিলেশনশিপ স্টেটাস হিসাবে লেখা রয়েছে- ‘ডেটিং যশ দাশগুপ্ত’।

নুসরত নিজে প্রতিবেদনের সেই অংশ ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে শেয়ার করে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট সংবাদমাধ্যমকে। এখানেই শেষ নয়, দুজনের মনের বাগানে যে ভালোবাসার ফুল ফুটেছে তা নানাভাবে বুঝিয়ে দিচ্ছেন দুজনেই। এরমধ্যেই এল নুসরতের মা হওয়ার সিদ্ধান্তের খবর। যদিও এখনই এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত কিছু বলতে চান নুসরত জাহান।

আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত কয়েক মাস ধরে টানাপড়েন চলছে নুসরাতের ব্যক্তিগত জীবনে। স্বামী নিখিল জৈনের সঙ্গে আইনি বিচ্ছেদ না হলেও একসঙ্গে থাকছেন না তাঁরা।

নুসরাতের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। ওঁর সঙ্গে দীর্ঘদিন আমার কোনো সম্পর্ক নেই। এর থেকেই স্পষ্ট হয়ে যায় যে এই সন্তান আমার নয়।’

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ‘এসওএস কলকাতা’ ছবির শুটিংয়ের সময় থেকেই যশের প্রেমে পড়েছিলেন নুসরাত। অতঃপর একসঙ্গে সময় কাটাতে শুরু করেছিলেন দুজনে। এর পরে মরুশহরে দুজন একসঙ্গে বেড়াতে গেলে প্রেমের গুঞ্জন নিশ্চিত খবরে পরিণত হয়।

এদিকে সবাইকে ফাঁকি দিয়ে চুপিচপি অজমের দরগায়ও ঘুরে এসেছিলেন দুজন। সম্পর্কের প্রথম দিকে কিছুটা রাখঢাক রাখলেও সময়ের সঙ্গে সেই জড়তা কেটেছে।

নেটমাধ্যমে একসঙ্গে বিশেষ মুহূর্ত কাটানোর ছবি থেকে নুসরাতের ছবির প্রিমিয়ারে যশের জোরালো উপস্থিতি- এ সব কিছুই বুঝিয়ে দিয়েছে পর্দার নায়ক-নায়িকার ব্যক্তিগত জীবনের সমীকরণ।