সুশান্তের সঙ্গে নিজেই সম্পর্ক ভেঙে বেরিয়ে এসেছিলেন রিয়া, মাস দুয়েক পর ফাঁস হল রিয়া-মহেশের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট

UBG NEWS, ডেস্ক :সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর পর থেকেই মহেশ ভাট আর রিয়া চক্রবর্তীকে নিয়ে বহু জল্পনা শোনা গিয়েছে। এবার মাস দুয়েক পর ফাঁস হল রিয়া-মহেশের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট। ৮ জুন যেদিন সুশান্তের বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন রিয়া, সেদিন পরিচালক মহেশ ভাটের সঙ্গে রাতে তাঁর কী কী কথা হয়েছিল, পুরো বিষয়টিই এবার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট ঘেঁটে উদ্ধার করা হল।

দুজনের কথোপকথনের মধ্যে দিয়ে এটা পরিষ্কার যে, সুশান্তের সঙ্গে নিজেই সম্পর্ক ভেঙে বেরিয়ে এসেছিলেন রিয়া। আর তাতে যথেষ্ট সায় ছিল মহেশের (Mahesh Bhatt)।অভিনেতার মৃত্যুর পর থেকেই নেটজনতার রোষানলে মহেশ ভাট।

শোনা গিয়েছিল, তাঁর ইন্ধনেই নাকি রিয়া ও সুশান্তের সম্পর্ক ভাঙে। নেটদুনিয়ায় উঠতে থাকা ক্রমাগত অভিযোগের ভিত্তিতে গত মাসে বান্দ্রা থানাতেও পরিচালককে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এমনকী সম্প্রতি রিয়ার কললিস্ট থেকে জানা গিয়েছিল যে জানুয়ারি মাসে মহেশের সঙ্গে তাঁক মাত্র কয়েকবার কথা হয়েছিল। কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট তো বলছে অন্য কথা!কীরকম সেই কথোপকথন? রিয়া (Rhea Chakraborty) মহেশকে লিখেছেন, ”আয়েশা ভারী হৃদয় ও মুক্তির কথা ভেবেই বেরিয়ে এসেছে স্যার! আমাদের শেষ কথা হয়েছিল, ঘুম থেকে ওঠার সময়, আপনিই আমার স্বর্গদূত। ছিলেন আর থাকবেন।” প্রসঙ্গত, ‘আয়েশা’ মহেশ ভাট প্রযোজিত ‘জলেবি’ ছবিতে রিয়ার চরিত্রের নাম।ওই হোয়াটসআপ চ্যাটে, রিয়াকে মহেশ ভাটের উত্তর, ”পিছনের দিকে তাকিও না, যা ঘটার সেটাই ঘটেছে। তোমার বাবার প্রতি ভালবাসা রইল। উনি এখন খুশি হবেন।” মহেশ ভাটের এই কথার উত্তরে রিয়া পালটা বলেছেন, ”কিছুটা সাহস পেয়েছি স্যার, আপনি আমার বাবার সম্পর্কে ওই দিন ফোনে যা বলেছিলেন, সেটা আমায় শক্ত হতে সাহায্য করেছে।” এই কথোপকথন থেকে পরিষ্কার যে রিয়া এবং মহেশের যোগাযোগ বেশ ভালরকমই ছিল সুশান্তের মৃত্যুর আগ অবধি।

 তবে কললিস্ট অনুযায়ী জানুয়ারি মাসে এতঘন ঘন কল দেখা গিয়েছে। তাহলে কি অন্য কোনও নম্বর ব্যবহার করছিলেন রিয়া এবং মহেশ? সেই প্রশ্নও তুলেছেন অনেকে।এই চ্যাটে রিয়া বারবার মহেশ ভাটকে ধন্যবাদ জানান। রিয়া মহেশকে লিখেছেন -“আপনি আমাকে আবার মুক্তি দিয়েছেন, আপনি আমার জীবনে ঈশ্বরের মতো।” এই কথোপকথন দেখে সাফ বোঝা যাচ্ছে যে মহেশের পরামর্শেই রিয়া সুশান্তের কাছ থেকে সরে আসেন।