Ad
বিনোদন

ভিখারি’ মন্তব্যে ক্ষমা চাইতে হবে দিলীপ ঘোষকে!, পুলিশের দ্বারস্থ মহিলা

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে সরকার’ (Duare Sarkar) কর্মসূচিকে কটাক্ষ করতে গিয়ে ‘বেফাঁস’ মন্তব্য করেছিলেন দিলীপ ঘোষ! BJP সভাপতি বলেছিলেন, ‘৫০০ টাকার জন্য সাধারণ মানুষকে ভিখারির মতো লাইনে দাঁড় করিয়ে রাখা হচ্ছে।’

এই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। এবার এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) বিরুদ্ধে পুলিশের দ্বারস্থ হলেন এক মহিলা।

Ad

বুধবার সালকিয়ার সীতানাথ বোস লেনের বাসিন্দা টুসু হাজরা গোলাবাড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তাঁর বক্তব্য, ‘আমি লাইনে দাঁড়িয়ে এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করেছি। আর শুধু আমি নই।

এই জনমুখী প্রকল্পে লাখ লাখ মহিলা আবেদন করছেন। কোন অধিকারে দিলীপ ঘোষ তাঁদের সকলকে ভিখারি বলতে পারেন।’

দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন টুসু হাজরা। তিনি বলেন, ‘প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে দিলীপ ঘোষকে।’ তাঁর অভিযোগ খতিয়ে দেখে পুলিশ উপযুক্ত ব্যবস্থার আশ্বাস দিয়েছে বলেও জানান টুসু।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের আবেদনপত্র নেওয়ার জন্য দুয়ারে সরকার প্রকল্পের ক্যাম্পে যাচ্ছেন বহু মানুষ। এবার এই প্রসঙ্গেই মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ। এদিন তিনি বলেন, ‘ভিড় করার জন্যই দুয়ারে সরকার হচ্ছে। ৫০০ টাকার জন্য ভোর ৪টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত দাঁড়িয়ে আছেন রোদে। এটা জনসেবা হতে পারে না। মানুষকে ভিখারি বানিয়ে রাস্তায় দাঁড় করানো হচ্ছে। মোদীজিকে দেখুন। সাধারণ মানুষকে তিনি হাজার হাজার টাকা দিচ্ছেন। ঘরে বসেই তাঁরা সেই টাকা পাচ্ছেন।’ এদিকে, দিলীপের ‘ভিখারি’ মন্তব্যে মহিলাদের ক্ষোভ প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে তিনি আরও বলেন, ‘ ৫০০ টাকার জন্য লাইনে দাঁড়াচ্ছেন, ভিখারি নয় তো কী!’

উল্লেখ্য, ১৬ অগাস্ট থেকে শুরু হয়েছে দুয়ারে সরকার প্রকল্প, যা চলবে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। আর এই ক্যাম্পগুলি থেকেই পাওয়া যাচ্ছে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের আবেদনপত্র। ২৫ থেকে ৬০ বছর বয়সী মহিলারা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন জানাতে পারেন। তবে তা শর্তসাপেক্ষ। প্রকল্পের সুবিধা হিসেবে তপশিলি জাতি-উপজাতির মহিলাদের মাসে ১০০০ টাকা এবং জেনারেল তালিকাভুক্ত মহিলাদের মাসে ৫০০ টাকা প্রতি মাসে তাঁদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা দেবে সরকার।

আরও পড়ুন