ভোটকর্মীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল নির্বাচন কমিশন

UBG NEWS: এক আধজন নয়, পুরো ১৩জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল নির্বাচন কমিশনার। এই ১৩জনই ভোটকর্মী। কমিশনের ভোট ডিউটির নির্দেশ পেলেও এনারা ভোটগ্রহণের প্রশিক্ষণ শিবির এড়িয়ে গিয়েছেন। এমনি তাঁদের আপত্তি ছিল ডিউটিতে যেতেও। সেই কারণেই এবার রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপক-সহ মোট ১৩জন ভোটকর্মীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল নির্বাচন কমিশন।

বাংলার নির্বাচনের এই ঘটনা কার্যত নজিরবিহীন। উত্তর দিনাজপুর জেলা নির্বাচন দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, বিধানসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণের প্রশিক্ষণ বিভিন্ন পর্বে অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেসব ভোট কর্মী সময়মত প্রশিক্ষণে উপস্থিত হতে পারেননি, তাঁদের পরবর্তীতে বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়, কিন্তু সেখানেও একাধিক ভোটকর্মী হাজির ছিলেন না। এরপরেই বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে নির্বাচন কমিশনার।

কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ১৩জনকে প্রথমে কমিশনের তরফে নোটিস পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু সেই নোটিসের কোন জবাব তাঁরা দেননি। এরপর কমিশনের তরফে তাঁদের শোকজ করা হয়। কিন্তু সেই শোকজের জবাবও সন্তোষজনক ছিল না। সেই কারণেই ভোটের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অনুপস্থিত থাকায় ১৩ জন ভোটকর্মীর বিরুদ্ধে রিপ্রেজেনটেটিভ অফ পাবলিক আক্ট-সহ তিনটি ধারায় রায়গঞ্জ থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় এবং কালিয়াগঞ্জ কলেজের এক অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর-সহ জেলার বিভিন্ন স্কুলের ১০জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সেইসঙ্গে একই অভিযোগ করা হয়েছে এক ইঞ্জিনিয়ারের বিরুদ্ধেও।

এই বিষয়ে উত্তর দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলাশাসক অলঙ্কৃতা পাণ্ডে বলেন, ‘দশজন শিক্ষক এবং এক ইঞ্জিনিয়ার সহ মোট ১৩ জন ভোটকর্মীর বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এরা ভোটে অশান্তির আশঙ্কা দোহাই দিয়ে ডিউটি এড়ানোর চেষ্টা করেছেন। এই ১৩ জন ভোটের ডিউটি থেকে অব্যাহতি পেতে ভুয়ো মেডিক্যাল সার্টিফিকেটও জমা দিয়েছিলেন। সব তদন্ত করে জেনেই কমিশন এদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিয়েছে।’