অতি ভয়াবহ পরিস্থিতি, দেশে সংক্রমণের হার পিছনে ফেলতে শুরু করল সুস্থতাকে, পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগে কেন্দ্র

ইউবিজি নিউজ : ভারতে ভয়াবহ হারে বাড়তে শুরু করে দিয়েছে করোনা সংক্রমণ। দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা চোখের নিমেষে আড়াই লাখের অঙ্ক পার করে গিয়েছে ভারতে। এদিকে মৃতের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। সেই দিকে তাকিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন একাধিক ভয়াবহ পরিসংখ্যান তুলে ধরেছেন।

কেন্দ্রের বার্তা

দেখা যাচ্ছে ভয়ঙ্করভাবে দেশে অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যার বাড়বাড়ন্ত শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় স্রোতের জেরে। বর্তমানে করোনার অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা মোট ১৬,৭৯,০০০ । এর পাশাপাশি মৃতের সংখ্যায় ১০.৬ শতাংশ বৃদ্ধি পরিলক্ষিত হয়েছে। সব মিলিয়ে এমন কঠিন পরিস্থিতিতে ভারতে করোনার গ্রাফ বেশ উদ্বেগে রাখছে।

পুরনো লড়াইতেই ফিরছে ভারত!

গত ৬ মাসে অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা, তথা মৃতের সংখ্যা কমিয়ে সুস্থতার সংখ্যা বাড়ানোর লড়াইয়ের দিকে এগিয়ে যায় দেশ। পরবর্তীকালে দেখা যায় পরিস্থিতি খানিকটা নিয়ন্ত্রণেও এসেছে। তবে গতকাল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন জানিয়েছেন, করোনার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যার যে গ্রাফ দেখা যাচ্ছে তাতে তাতে বারবার পরিলক্ষিত হচ্ছে যে সংক্রমণ আগের চেয়ে বেশি দ্রুত হারে এগোচ্ছে। যার হাত ধরে অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা হু হু করে এগিয়ে গিয়েছে।

গত জুনের তুলনায় মারাত্মকভাবে বাড়ছে করোনা!

প্রসঙ্গত, গতবছর জুন মাসে যে গতিতে করোনা এগিয়ে গিয়েছে, এবছর তার তুলনায় করোনা পরিস্থিতি আরও ভয়ানক। ভারতে করোনার সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি দেখা গিয়েছে। যা ৭.৬। ২০২০ সালের জুন মাসে করোনার গ্রোফ রেট ছিল ৫.৫ শতাংশ। তার থেকে এবছর আপাতত ১.৩ শতাংশ হার বেশি রয়েছে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ক্ষেত্রে।

৬ টি রাজ্যে ভেন্টিলেটর

এদিকে, দেশের ৬ টি রাজ্যে ভেন্টিলেটর প্রদানের বিষয়ে কেন্দ্র প্রাসঙ্গিক ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী। ৬,৩০৩ টি বাড়তি ভেন্টিলেটর দেশের করোনা আক্রান্ত সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যকে দেওয়া হবে। মহারাষ্ট্র পাচ্ছে ১১২১ টি ভেন্টিলেটর, ১৭০০ টি ভেন্টিলেটর পাচ্ছে উত্তর প্রদেশ, ১৫০০ টি ভেন্টিলেটর যাচ্ছে ঝাড়খন্ডে, ১৬০০ টি গুজরাতে, ১৫২ টি পাচ্ছে মধ্যপ্রদেশ, এবং২৩০ টি ভেন্টিলেটর যাচ্ছে করোনা বিধ্বস্ত ছত্তিশগড়ে।