রাজ্যে বেলাগাম করোনায় সমস্ত বড় সভা বাতিল মমতার

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : দেশের মতো রাজ্যেও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাস। রবিবার প্রায় সাড়ে আট হাজার জন আক্রান্ত হয়েছে নির্বাচনী বাংলায়। যা অতিমারীর ইতিহাসে বাংলায় সর্বকালীন রেকর্ড এখনও পর্যন্ত। কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে কলকাতায় সমস্ত বড় সভা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রবিবার রাতে টুইটে এ কথা জানিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। তিনি লেখেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আর কলকাতায় প্রচার করবেন না। ২৬ এপ্রিল একটি প্রতীকী বৈঠক করবেন সব জেলার জন্য। সেটিও ৩০ মিনিটের বেশি হবে না।”

রবিবার রাতে একটি সংবাদমাধ্যমে তৃণমূল নেত্রী বলেছিলেন, “করোনা পরিস্থিতির যে রকম অবনতি হয়েছে তাতে আমি কলকাতায় আর কোনও বড় সভা করবো না বলে ঠিক করেছি। শুধু ২৬ এপ্রিল বিডন স্ট্রিটে একটা সভা ঘোষণা করা হয়েছে ওটা করব।”

কোভিড সংক্রমণের ছবি ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠাতেই নিজের নির্বাচনী কর্মসূচিতে নিয়ন্ত্রণ আনছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে রাজ্য এখনও তিন দফার ভোট বাকি। রয়েছে কলকাতার দু’দফা ভোটও। বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, মালদহ, পশ্চিম বর্ধমান, দুই দিনাজপুর এবং উত্তর ২৪ পরগনা ও নদিয়ারও ভোট বাকি। এই প্রেক্ষাপটে তৃণমূল সুপ্রিমোর এই সিদ্ধান্ত যে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ এমনটাই মত।

নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহের মতো নেতারা রাজ্যে নিয়মিত প্রচারে আসলেও করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় নির্বাচনী প্রচারে রাজ্যে না-আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। রবিবারই টুইটে একথা জানিয়েছেন সোনিয়া-পুত্র। কোভিড পরিস্থিতির কথা ভেবে আগেই প্রচার বন্ধ করেছে বামেরা।