Ad
করোনা ভাইরাস

টানা ১ সপ্তাহ দৈনিক আক্রান্ত সংখ্যা ৫০ হাজারের কম, শতাংশ হারে কমছে সংক্রমণ

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

ইউবিজি নিউজ ডেস্ক : শতাংশ হারে কমছে সংক্রমণ, ধীরে ধীরে খালি হচ্ছে হাসপাতালের বেড। অক্সিজেনের হাহাকার আর বেড না পাওয়ার দীর্ঘশ্বাস দেশের রাজ্যে রাজ্যে কান পাতলে আর শোনা যাচ্ছে না। যেখানে মাস খানেক আগেও শহরে শহরে শুধু বেড অক্সিজেনের হাহাকার আর হাসপাতালের মর্গে উপচে পড়ছিল মৃতদেহ, আতঙ্কের সেই দিন পেরিয়ে এসেছে ভারত। তৃতীয় ঢেউয়ের নতুন উদ্বেগ কড়া নাড়লেও আগের বিপদ ঘুচেছে একটু একটু করে।

কয়েক মাস আগেও দৈনিক সংক্রমণ ছিল দেখে ৪ লাখ বা তার কম বেশি, সেই পরিস্থিতি থেকে এই মুহূর্তে অবস্থা অনেক ভালো। টানা এক সপ্তাহ ধরে দেশের দৈনিক সংক্রমন ৫০ হাজারের নিচে। দ্বিতীয় ওভেয়ের ভয়াবহতার পর একাধিক রাজ্যে জারি হওয়া বিধি নিষেধ আর ভ্যাকসিনেসন সব মিলিয়ে সেকন্ড ওয়েভের বিরুদ্ধে কড়া লড়াই দিয়েছে দেশবাসী। রবিবার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্ত হয়েছে ৪৩হাজার ৭১ জন।

Ad

অর্থাৎ কালকের থেকেও আজ কমেছে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা। দিল্লি থেকে বাংলা আগের থেকে অনেক কমেছে প্রায় সব রাজ্যের সংক্রমণ। কমেছে হাহাকার কমেছে চিন্তা। এখনো পর্যন্ত সব মিলিয়ে দেশের মোট করোনা আক্রান্তের পরিমাণ ৩ কোটি ৫লক্ষ ৪৫ হাজার ৪৩৩

শতাংশ হারে কমছে সংক্রমণ, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতের সব রাজ্য মিলিয়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরে এসেছেন ৫২ হাজার ২৯৯ জন। এখনও পর্যন্ত দেশে সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৯৬ লক্ষ ৫৮ হাজার ৭৮ জন মানুষ। আর গতকালের সুস্থতার হারের ওপর নির্ভর করে এই মুহুর্তে দেশে কভিড কবলে পড়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন মোট ৪ লক্ষ ৮৫ হাজার ৩৫০ জন।

এদিকে করোনা সংক্রমণ কমানর কারণ হিসেবে এই মুহুর্তে জোর দেওয়া হচ্ছে টিকাকরণকে। এখনো পর্যন্ত দেশে ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৩৫ কোটির বেশি মানুষ। টিকা নিয়ে টানাপোড়েনের পর কেন্দ্র সরকার বিনামূল্যে টিকা দিচ্ছে রাজ্য গুলিকে। তৃতীয় ঢেউ নিয়ে দিনে দিনে উদ্বেগ বাড়লেও, দ্বিতীয় ওয়েভের এই সংক্রমণ হ্রাস কিছুটা স্বস্তি আনছে সব মহলেই।

আরও পড়ুন