Ad
কোচবিহার

কোচবিহার জেলায় দীর্ঘ তিন বছর ধরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে বিছানায় শয্যাশায়ী স্বামী, মিলেনি সরকারি সাহায্য, ভিক্ষে করেই সংসার চালাচ্ছেন ৩ বছরের কন্যাসন্তান ও স্বামীকে নিয়ে স্ত্রী অনামিকা বিশ্বাস

এই বিজ্ঞাপনের পরে আরও খবর রয়েছে

অভিষেক দে, ঘোকসাডাঙা : দীর্ঘ তিন বছর ধরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে বিছানায় শয্যাশায়ী স্বামী, মিলেনি সরকারী সাহায্য, ভিক্ষে করে ই সংসার চালাচ্ছেন, ৩ বছরের কন্যাসন্তান ও স্বামীকে নিয়ে অনামিকা বিশ্বাস।

রেশন কার্ড থাকলেও পাননা রেশন, অভাব অনাটনেই দিন কাটে ঘোকসাডাঙা থানার, পাড়াডুবি গ্রাম পঞ্চায়েতের দক্ষিণ বরাইবাড়ি গ্রামের হিন্দুস্তান মোড় এলাকার স্বপন বিশ্বাসের পরিবারের, বরাবর আবেদন করে, স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান বিডিও অফিস কে জানিয়েও মিলেনি কোনো সরকারি সাহায্য, এমনটাই অভিযোগ পরিবারের,

Ad

পরিবার জানা গেছে স্বপন বিশ্বাস আগে তিনি মুম্বাই এ কাজ করতেন, সেখান থেকে বাড়িতে এসে একদিন হিন্দুস্তান মোড় থেকে ঘোকসাডাঙা যাওয়ার সময় ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তিনি, তারপর মাথাভাঙ্গা থেকে, শিলিগুড়ি, কলকাতা পর্যন্ত নিয়ে গিয়েছিল স্বপন কে, কিন্তু দারিদ্রতা হার মানায় পরিবার কে,
বর্তমানে বিছানায় শয্যাশায়ী স্বপন, ক্যামেরা দেখে চোখে জল পরিবারের,

ভোটের আগে অবশ্য নেতা মন্ত্রীরা এসে আশ্বাস দিয়ে গিয়েছিল সাহায্যের, সেসব অতীত, কেউ সাহায্য করেন না, ভিক্ষে করেই একবেলা চলে, আরেকবেলা দুমুঠো ভাত জোটে না তাদের,

৩ বছরের কন্যাসন্তান আছে স্বপন ও অনিমাকা বিশ্বাসের, সেই কন্যাকে দেখে ই কিছুটা ভিক্ষে জোটে পরিবারের, কেউ আবার তাড়িয়ে দেন, এমনটাই জানিয়েছেন অনামিকা ও স্বপন

ভোটের কিছুদিন আগে এলাকার প্রাপ্তন মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মনের বাড়ি গেলে স্বপন বিশ্বাস এর স্ত্রী অনামিকা কে ৫০০ টাকা দেন বিনয়বাবু, কিন্তু তা দিয়ে কি চিকিৎসা হয় ?, এছাড়া বিজেপি বিধায়ক সুশীল বর্মন ও সাহায্য করবেন মুখে বলেছেন কিন্তু কোন সাহায্য করেননি, এমন ই অভিযোগ পরিবারের

এখন নাকি শাষক বিরোধী সবাই বলেন তাদের হাতে কিছু নেই , কেউ কোনরকম সাহায্য করছে না, পরিবারের দাবি তারা যেন টুকু পায় এবং সরকারি সাহায্যের আশ্বাস জানিয়েছেন, এছাড়া তাদের ছোট কন্যা সন্তানকে যেন তারা শিক্ষাদান করতে পারেন সেই আবেদনও জানিয়েছেন পরিবার ।

আরও পড়ুন