কোচবিহারে জনসভার পর দলের বিক্ষুব্ধদের সাথে বৈঠক করতে চলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

দিনহাটা, ২ এপ্রিলঃ দলের বিক্ষুব্ধদের সাথে বৈঠক করবেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ দিনহাটায় জনসভার পরেই স্থানীয় বিক্ষুব্ধদের সাথে তাঁর বৈঠক রয়েছে বলে দলীয় সূত্রে খবর। গতকালই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দফতর থেকে ফোন ও চিঠি পাঠিয়ে দিনহাটার ৮ বিক্ষুব্ধদের সাথে বৈঠক করার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

ওই বিক্ষুব্ধদের মধ্যে রয়েছেন কোচবিহার জেলা পরিসদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ তথা দিনহাটা ২ নম্বর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি মীর হুমায়ূন কবীর, স্থানীয় তৃণমূল নেতা অসীম নন্দী, সাবীর সাহা চৌধুরী, মিল সেন, তরণী কান্ত বর্মণ সহ মোট ৮ জন নেতৃত্ব। যদিও ইতিমধ্যেই ওই ৮ জনের মধ্যে অজয় রায় (বুড়া) তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

দিনহাটার তৃণমূল প্রার্থী উদয়ন গুহের সাথে দীর্ঘ দিন থেকেই ওই ৮ নেতার গোষ্ঠী বিরোধ চলে আসছে। এবার নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণার আগে প্রকাশ্য সভা করে প্রার্থী বদলের দাবি জানিয়েছিলেন ওই ৮ তৃণমূল নেতা ও তাঁর অনুগামীরা। প্রার্থী ঘোষণার পরেও দীর্ঘ সময় তাঁরা কার্যত প্রচার থেকে বিমুখ ছিলেন। সম্প্রতি দলের কোচবিহার জেলা সভাপতি পার্থ প্রতিম রায় এদের বেশ কয়েকজনকে শোকজ পর্যন্ত করেন।

এভাবে বিরোধ চরম পর্যায়ে পৌঁছানোয় অজয় রায় সহ বিক্ষুব্ধদের বেশ কয়েকজন অনুগামী সম্প্রতি গেরুয়া শিবিরে যোগ দেন। কিন্তু মূল নেতৃত্বরা এখনও দল বদল করেন নি। সম্প্রতি দুই একটি সভাতে মীর হুমায়ূন কবীর, তরণী কান্ত বর্মণ ও অসীম নন্দীদের প্রচার করতেও দেখা গিয়েছে। কিন্তু মানসিক ভাবে তাঁরা প্রার্থী হয়ে কাজ করছিলেন না বলেই রাজনৈতিক মহলের ধারনা। আর সেই কারণেই মুখ্যমন্ত্রী এদিন দিনহাটায় সভা করার পরে ওই বিক্ষুব্ধদের নিয়ে বৈঠক করবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

দিনহাটার সভার পরে তুফানগঞ্জেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি সভা রয়েছে। সেখানে সেভাবে কোন বিক্ষুব্ধ না থাকলেও সভা শেষে স্থানীয় দলীয় নেতৃত্বের সাথে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বৈঠক করতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।